বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > তৃণমূলের দুয়ারে সরকারকে ঠেকাতে বিজেপি’‌র নয়া ছক, এক কোটি বাড়িতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত
ফাইল ছবি (PTI)
ফাইল ছবি (PTI)

তৃণমূলের দুয়ারে সরকারকে ঠেকাতে বিজেপি’‌র নয়া ছক, এক কোটি বাড়িতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত

  • ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলকে কোণঠাসা করতে বিজেপি নতুন ছক কষেছে।

২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলকে কোণঠাসা করতে বিজেপি নতুন ছক কষেছে। তাঁরা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের দুর্নীতি নিয়ে ১০ মিলিয়ন পরিবারের কাছে গিয়ে প্রচার করবে। আর এভাবেই মানুষকে প্রভাবিত করে ভোটবাক্স ভরাবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। বিজেপি’‌র কর্মী–সমর্থকদের নিয়ে এই কাজ করা হবে বলে খবর।

এই বিষয়ে বিজেপি’‌র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌তৃণমূল সরকার ‘‌দুয়ারে সরকার’‌ বলে প্রকল্প নিয়ে যেভাবে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছচ্ছে সেভাবে বিজেপি কর্মীরাও ১ কোটি পরিবারের কাছে ‘‌আর নয় অন্যায়’‌ কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে মানুষের কাছে পৌঁছবে। আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকে এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।’‌

কিভাবে তা করা হবে?‌ দলীয় সূত্রে খবর, রাজ্যজুড়ে বিজেপি কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে লিফলেট দেবেন। এই লিফলেটে লেখা থাকবে তৃণমূলের দুর্নীতি। আর কেমন করে মানুষকে কিষান সম্মাননিধি এবং আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। আগামী দু’‌মাস যাবৎ এই কর্মসূচি চলবে। যার ফলে মানুষের সঙ্গে জনসংযোগও ঘটবে। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। তার জন্য প্রত্যেক গ্রামে চারটে করে ক্যাম্প করা হবে।

তৃণমূলের পক্ষ থেকে ৩৪৪টি ব্লকে এবং গ্রামে গ্রামে মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই বিষয়ে রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‌ইতিমধ্যেই আমাদের কর্মসূচি নেওয়া হয়ে গিয়েছে। তাছাড়া আমরা মানুষের পাশে সারা বছর থাকি। ১ ডিসেম্বর থেকে ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরকারি নানা কাজ ও পরিষেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। তার মধ্যে ১০০ দিনের জব কার্ড, স্বাস্থ্য সাথী কার্ড, জাতি শংসাপত্র, রেশন কার্ড–সহ আরও অনেক নথি তুলে দেওয়া হবে মানুষের প্রয়োজনে। এটা সরকারের সব থেকে বড় প্রকল্প। সরকারের প্রকল্প পেতে সাড়ে পাঁচ লাখ মানুষ দু’‌দিনে ক্যাম্পে এসেছিলেন।’‌

বন্ধ করুন