বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মিথ্যা তথ্য দিয়েও আদালতের কৃপায় এযাত্রায় ছাড় পেলেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

মিথ্যা তথ্য দিয়েও আদালতের কৃপায় এযাত্রায় ছাড় পেলেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল

  • পুরভোট মামলার শুনানিতে গত ২৪ ডিসেম্বর রাজ্যের তরফে হলফনামা পেশ করে অ্যাডভোকেট জেনারেল জানান, হাওড়া পুরসভা থেকে বালিকে পৃথক করতে পাশ হওয়া বিলে সই করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

আদালতে মিথ্যে কথা বলে এবারের মতো পার পেয়ে গেলেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়। পুরভোট মামলার শুনানিতে বুধবার তাঁর ক্ষমাপ্রার্থনার আর্জি মঞ্জুর করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। হাইকোর্ট ক্ষমার আর্জি মঞ্জুর না করলে কঠিন আইনি প্রক্রিয়ার মধ্যে পড়তে হতো অ্যাডভোকেট জেনারেলকে। হতে পারত জেল জরিমানাও।

পুরভোট মামলার শুনানিতে গত ২৪ ডিসেম্বর রাজ্যের তরফে হলফনামা পেশ করে অ্যাডভোকেট জেনারেল জানান, হাওড়া পুরসভা থেকে বালিকে পৃথক করতে পাশ হওয়া বিলে সই করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। যার ফলে হাওড়া পুরসভায় নির্বাচন করাতে বাধা নেই। কিন্তু পরদিনই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় টুইট করে জানান, বিলে তিনি সই করেননি আদালতে মিথ্যে বলছেন অ্যাডভোকেট জেনারেল।

বেগতিক দেখে এর পর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন অ্যাডভোকেট জেনালের। শুনানিতে তিনি স্বীকার করেন, আগের হলফনামায় তাঁর পেশ করা তথ্যে ‘ভুল’ ছিল। রাজ্যপাল হাওড়া পুরসভা সংশোধনী বিলে সই করেননি। ফলে হাওড়া পুরসভায় নির্বাচন করানো সম্ভব নয়। নিজের ভুলের জন্য আদালতের কাছে ক্ষমা চান তিনি।

আদালতে মিথ্যা তথ্য দেওয়া গর্হিত অপরাধ। কেউ জ্ঞানত আদালতে মিথ্যা তথ্য পেশ করলে জেল ও জরিমানা উভয়ই হতে পারে।

 

বন্ধ করুন