বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাড়ি বসে পরীক্ষা, তাই থাকবে না অ্যাডমিট কার্ড, সিদ্ধান্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

বাড়ি বসে পরীক্ষা, তাই থাকবে না অ্যাডমিট কার্ড, সিদ্ধান্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের

  • পরীক্ষা পদ্ধতি অনুসারে, ১ – ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে পরীক্ষা। যে দিন যে পরীক্ষা সেদিন তার প্রশ্নপত্র আপলোড করে দেওয়া হবে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে। প্রশ্নপত্র ডাউনলোড করে লিখতে হবে উত্তর।

থাকবে না কোনও অ্যাডমিট কার্ড। ওয়েবসাইট থেকে প্রশ্নপত্র ডাউনলোড করে সাদা কাগজে উত্তর লিখে ছবি তুলে আপলোড করে দিলেই কাজ হাসিল। তাও করতে হবে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে। খাতা দেখবেন সেই কলেজের অধ্যাপকরাই। বুধবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষদের সঙ্গে উপাচার্যদের বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

এদিন ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ১৫২টি কলেজের অধ্যক্ষদের সঙ্গে বৈঠক করেন উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ওপেন বুক পদ্ধতিতেই হবে পরীক্ষা। অর্থাৎ পরীক্ষার্থীরা ইচ্ছা করলে বই খুলেও পরীক্ষা দিতে পারবেন। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে প্রকাশ করা হবে না কোনও অ্যাডমিট কার্ড। যেহেতু ছাত্রছাত্রীরা বাড়ি বসেই পরীক্ষা দেবেন তাই অ্যাডমিট কার্ড অপ্রয়োজনীয় বলে মত অধিকাংশ অধ্যক্ষের। বদলে খাতার ওপর লিখতে হবে নাম ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর। 

পরীক্ষা পদ্ধতি অনুসারে, ১ – ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে পরীক্ষা। যে দিন যে পরীক্ষা সেদিন তার প্রশ্নপত্র আপলোড করে দেওয়া হবে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে। প্রশ্নপত্র ডাউনলোড করে লিখতে হবে উত্তর। সাদা পাতায় উত্তর লিখে ক্যামেরায় ছবি তুলে তা আপলোড করতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে। কোথাও ইন্টারনেটে সমস্যা থাকলে উত্তরপত্র কলেজে জমা দিয়ে যেতে পারেন সেই পরীক্ষার্থী। খাতা দেখবেন সেই কলেজেরই অধ্যাপকরা। 

কেন্দ্রের নির্দেশ অনুসারে গত বছর প্রাপ্ত নম্বরের নিরিখে এবছর স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাজ্য সরকার। কিন্তু গত মাসে সুপ্রিম কোর্ট জানায়, চূড়ান্ত বর্ষে পরীক্ষা নিতেই হবে। এর পর ওপেন বুক পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়াপ কথা ঘোষণা করে রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকার পোষিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকের পর এই সিদ্ধন্ত ঘোষণা করেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। 

 

বন্ধ করুন