বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > শ্বাসকষ্ট হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর, মেডিকেল বুলেটিনে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য
বুধবার রাতে কলকাতার SSKM হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত মুখ্যমন্ত্রী। 
বুধবার রাতে কলকাতার SSKM হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত মুখ্যমন্ত্রী। 

শ্বাসকষ্ট হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর, মেডিকেল বুলেটিনে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

  • এই বিষয়ে এসএসকেএম হাসপাতাল মেডিকেল বুলেটিন প্রকাশ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, বাঁ–পায়ের গোড়ালির হাড়ে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বাংলার মানুষ এখন জানতে চান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেমন আছেন?‌ তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এমন দাবি করা হয়েছে। এই বিষয়ে এসএসকেএম হাসপাতাল মেডিকেল বুলেটিন প্রকাশ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, বাঁ–পায়ের গোড়ালির হাড়ে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। শিরায় মারাত্মক আঘাত রয়েছে। এছাড়া পায়ের পাতা, ডান হাত, গলা এবং ডান কাঁধেও রয়েছে চোট। তার জেরে নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে। বাঙুর হাসপাতালে এমআরআই করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এসএসকেএম হাসপাতালের অধিকর্তা চিকিৎসক মণিময় বন্দ্যোপাধ্যয়। আপাতত তাঁকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ফের তাঁর সিটি স্ক্যান করা হবে বলে খবর।

বুধবার নন্দীগ্রামে চার–পাঁচজন ইচ্ছাকৃতভাবে ধাক্কা দেওয়ায় গুরুতর চোট পান মমতা। এই অভিযোগ তিনি নিজেও করেছেন। বুধবার বিরুলিয়া বাজারেই আহত হন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার। প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলেন জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার। এখন এমআরআই করার পর তিনি হাসপাতালে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন।

এমআরআই রিপোর্ট খতিয়ে দেখার পর চিকিৎসক মণিময় বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘প্রাথমিক রিপোর্টে ইঙ্গিত, বাঁ পায়ের গোড়ালি ও পায়ের পাতার হাড়ে গুরুতর (সিভিয়ার) চোট রয়েছে। রক্ত জমেছে। চোট রয়েছে ডান কাঁধ, ডান হাত ও গলায়। মুখ্যমন্ত্রী বুকে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা অনুভব করছেন। আগামী ২৪ ঘণ্টার জন্য তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’ এই বিষয়ে তৃণমূলের সাংসদ ডা: শান্তনু সেন জানান, পরীক্ষার পর দেখা গিয়েছে তাঁর পায়ের পাতায় চিড় ধরেছে। লিগামেন্ট, টিস্যুতেও চোট লেগেছে তাঁর। তাঁর বাঁ–পায়ের গোড়ালি ফুলে রয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, উডবার্ন ওয়ার্ডের ওই ১২.‌৫ নম্বর কেবিনেই তাঁকে রাখা হয়েছে। তাঁর চিকিৎসায় গঠিত মেডিক্যাল টিমের সদস্যরা পর্যবেক্ষণ করছেন। বাঙুরে নিয়ে যাওয়ার আগে এসএসকেএম হাসপাতালে এক্স–রে এবং সিটি স্ক্যান করা হয় মুখ্যমন্ত্রীর। ব্যথা উপশমের ওষুধও দেওয়া হয়। এই পরিস্থিতিতে মমতার নির্বাচনী প্রচার নিয়েও ধোঁয়াশা তৈরি হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‌নির্বাচনে অশান্তি পাকাতে এই কাজ করা হচ্ছে।’‌

বন্ধ করুন