বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > A‌martya Sen: ‘‌দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা রয়েছে মমতার’‌, মন্তব্য অমর্ত্য সেনের

A‌martya Sen: ‘‌দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা রয়েছে মমতার’‌, মন্তব্য অমর্ত্য সেনের

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন।

সম্প্রতি কুণাল ঘোষ বলেছিলেন, আগামী বছর ১৫ অগস্ট লালকেল্লা থেকে দেখতে পাওয়া যাবে ৫ ফুটের মহিলা হাওয়াই চটি আর তাঁতের শাড়ি পরে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন। ২০২২ সালে একুশে জুলাইয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘কোন অঙ্কে, কীভাবে আমি বলব না। তবে ২০২৪ দিল্লিতে বিজেপি থাকবে না, থাকবে না, থাকবে না।’

একুশের নির্বাচনে বাংলায় সর্বশক্তি দিয়েও বিজেপি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে হারাতে পারেনি। বরং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সমস্ত শক্তিকে পরাজিত করে তৃতীয়বার সরকার গঠন করেছেন। ২০২৪ সালে দেশে হবে লোকসভা নির্বাচন। ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ‘ভারত এবার দিদিকে চায়’ স্লোগান দিয়েছে। এসবের মধ্যেই সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন নিজের মতপ্রকাশ করে জানালেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা রয়েছে। আর এই মন্তব্য নিয়ে এখন আলোড়ন পড়ে গিয়েছে।

ঠিক কী বলেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ?‌ বিজেপি যখন লোকসভা নির্বাচন নিয়ে ঘুঁটি সাজাতে শুরু করেছেন তখন বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ। এদিন অমর্ত্য সেন বলেন, ‘এই নয় যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যোগ্যতা নেই। অবশ্যই তাঁর যোগ্যতা রয়েছে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার। কিন্তু বিজেপির বিরুদ্ধে মানুষের ক্ষোভকে তিনি কতটা টানতে পারবেন সেটাই সবচেয়ে বড় বিষয়। এখনও সেটা দেখা যাচ্ছে না। তাঁকে বিজেপির দেশ বিভাজনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেতৃত্বে থাকতে হবে।’

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ সম্প্রতি তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেছিলেন, আগামী বছর ১৫ অগস্ট লালকেল্লা থেকে দেখতে পাওয়া যাবে ৫ ফুটের মহিলা হাওয়াই চটি আর তাঁতের শাড়ি পরে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন। এটা অবশ্য তাঁর দলের সদস্যের কথা। ২০২২ সালে একুশে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘কোন অঙ্কে, কীভাবে আমি বলব না। তবে ২০২৪–এ দিল্লিতে বিজেপি থাকবে না, থাকবে না, থাকবে না।’ এবার স্বয়ং নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন এমন মন্তব্য করলে বিজেপির অস্বস্তি বাড়তে শুরু করেছে বলে খবর।

আর কী বলেছেন তিনি?‌ অমর্ত্য সেনও তাঁর সাক্ষাৎকারে ২০২৪ সালের নির্বাচনে আঞ্চলিক শক্তির গুরুত্বের কথা বলেছেন। সেখানে অন্যান্য দলের পাশাপাশি তৃণমূল কংগ্রেসের কথাও উল্লেখ করেন। তাঁর মতে, ‘‌বিজেপি যেভাবে নিজেকে বিরাট শক্তিধর হিসেবে দেখায় সেটা একটা দিক। কিন্তু বিজেপির দুর্বলতাও বিস্তর। সমস্ত দল যদি একসঙ্গে লড়াই করতে পারে তাহলে ২০২৪ সালে বিজেপিকে রুখে দেওয়া সম্ভব।’‌ তবে কংগ্রেস যেভাবে দুর্বল হয়েছে তাতে তাদের উপর মানুষ কতটা আস্থা রাখবে তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন নোবেলজয়ী।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন