বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > তেলেনিপাড়ায় গ্রেফতার হওয়া ১১৯ জনের মধ্যে ৮৯ জনই হিন্দু, দাবি দিলীপ ঘোষের
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

তেলেনিপাড়ায় গ্রেফতার হওয়া ১১৯ জনের মধ্যে ৮৯ জনই হিন্দু, দাবি দিলীপ ঘোষের

  • দিল্লিতে যেমন আম আদমি পার্টির বিধায়কের বাড়ি থেকে হামলা হয়েছিল। তেলেনিপাড়ায় তেমন তৃণমূল কাউন্সিলরের বাড়ি থেকে হামলা হয়েছে।

তেলেনিপাড়ার ঘটনার জন্য ফের একবার তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুললেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শুক্রবার এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘তেলেনিপাড়ায় গ্রেফতার হওয়া ১১৯ জনের মদ্যে ৮৯ জনই হিন্দু। অথচ হিন্দুরা সেখানে পিকচারেই ছিল না।’

এদিন তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমের এক মন্তব্যের জবাবে দিলীপবাবু বলেন, ‘দিল্লিতে যেমন আম আদমি পার্টির বিধায়কের বাড়ি থেকে হামলা হয়েছিল। তেলেনিপাড়ায় তেমন তৃণমূল কাউন্সিলরের বাড়ি থেকে হামলা হয়েছে। সেই ভিডিয়ো আমাদের কাছে রয়েছে। বিজেপিকে এর মধ্যে টেনে নিয়ে গিয়ে লাভ নেই।‘

দিলীপ ঘোষের দাবি, ‘একটা পাড়া থেকে গিয়ে অন্য পাড়ায় বোম মারা হয়েছে। মন্দির ভাঙা হয়েছে। বাড়ি ঘর জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই লোকেরা এখনো ক্ষতিগ্রস্ত। যারা তার প্রতিবাদ করা হয়েছে সেরকম ৮৯ জন হিন্দুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১১৯ জনের মধ্যে।‘ 

নীরিহ হিন্দুদের ওপর নির্যাতন করা হয়েছে বলে দাবি করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘হিন্দুরা সেখানে কোনও পিকচারেই ছিল না। সেখানে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার, টেস্টিং নিয়ে পুলিশের সঙ্গে মুসলিম পাড়ার ঝগড়া ছিল। হিন্দু পাড়ায় গিয়ে আক্রমণ কেন করেছে? তার উত্তর কি রয়েছে ববি হাকিমের কাছে?’

এর পরই কলকাতার মুখ্য প্রশাসককে দিলীপ ঘোষের কটাক্ষ, ‘যিনি কলকাতার মধ্যে মিনি পাকিস্তান দেখতে পান, তার কাছ থেকে আর কিছু আশা করা যায় না।‘

বলে রাখি ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, ‘পাকিস্তানে হিন্দুদের ওপর অত্যাচারের ভিডিয়ো দেখিয়ে তেলেনিপাড়ায় দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করছে বিজেপি।’

 

বন্ধ করুন