বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > দিলীপ ঘোষ সব সময় ফ্রন্টফুটে খেলে, কারও দয়ায় রাজনীতি করি না
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

দিলীপ ঘোষ সব সময় ফ্রন্টফুটে খেলে, কারও দয়ায় রাজনীতি করি না

  • যারা বলছেন, দায়িত্ব পাচ্ছেন না তারা মাঠে নেমে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করে দেখান। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে দিলীপবাবু বলেন, আমি কাদের কাজ দিয়েছি তার নামের তালিকা দেখাচ্ছি।

নিজের বিরুদ্ধে স্বজনপোষণ ও একনায়কতন্ত্র কায়েমের যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, আমি সাড়ে চার বছর সভাপতি রয়েছি। প্রথম দফায় সফল না হলে ফের কেন আমাকেই সভাপতি করলেন দলের নেতারা? তারা এত বোকা না কি?

বলে রাখি, সম্প্রতি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে দলের ভিতর স্বজনপোষণ ও একনায়কতন্ত্র কায়েমের একাধিক অভিযোগ কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে রাজ্য বিজেপির কয়েকজন নেতা ও জনপ্রতিনিধি। তাদের দাবি, নির্দিষ্ট কয়েকজনকেই সমস্ত দায়িত্ব দিচ্ছেন দিলীপবাবু। অন্যরা দায়িত্ব পাচ্ছেন না। এই অভিযোগের জেরেই দিলীপবাবুকে দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা দিল্লি ডেকে পাঠিয়েছেন বলেও দাবি করেন তাঁরা।

রবিবার দিল্লি পৌঁছে যদিও এব্যাপারে খোলা ব্যাটে খেলেন দিলীপ। বলেন, দিলীপ ঘোষ সব সময় ফ্রন্টফুটে খেলে। কারও পরোয়া করে না, কারও দয়ায় রাজনীতি করে না। যারা বলছেন, দায়িত্ব পাচ্ছেন না তারা মাঠে নেমে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করে দেখান। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে দিলীপবাবু বলেন, আমি কাদের কাজ দিয়েছি তার নামের তালিকা দেখাচ্ছি। আপনি কাদের কাজ দিইনি তার তালিকা দেখান। বিজেপিতে দায়িত্ব পেতে গেলে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করতে হয়। যারা যোগ্যতা প্রমাণ করতে পারেননি তারাই কাজ পাননি। 

দিলীপবাবু বলেন, আমার সভাপতিত্বের প্রথম দফায় এসব নিয়ে কোনও কথা ওঠেনি। সাড়ে চার বছর হয়ে যাওয়ার পর উঠছে। আমার নেতৃত্বেই লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ভাল ফল করেছে। আমার দলের নেতারা আমাকে তাই ফের একবার সভাপতির পদে বসিয়েছেন। দলের নেতারা কি এতটাই বোকা?

সঙ্গে জে পি নড্ডার তলব নিয়েও বিভ্রান্তিকর প্রচার চলছে বলে দাবি করেন দিলীপ ঘোষ। বলেন, আমি গতবার যখন দিল্লি এসেছিলাম নড্ডাজির সঙ্গে দেখা হয়নি। তাই তিনি আমাকে সময় করে দিল্লি এসে একবার দেখা করতে বলেছিলেন। উত্তরবঙ্গ সফর সেরে তাই আমি এখানে এসেছি। 

বন্ধ করুন