বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মমতাদির ইচ্ছাকে বাস্তবায়িত করাই আমার কর্তব্য, নবান্ন থেকে বেরিয়ে বললেন শোভন
নবান্ন থেকে বেরিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায়। 

মমতাদির ইচ্ছাকে বাস্তবায়িত করাই আমার কর্তব্য, নবান্ন থেকে বেরিয়ে বললেন শোভন

  • তিনি বলেন, ‘আমার ছোটবেলা থেকে আজকের এই দিন পর্যন্ত প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতাদির ইচ্ছা বাস্তবায়িত করা আমার কর্তব্য বলে আমি মনে করি।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে তৃণমূলে ফেরার গ্রিন সিগন্যাল পেয়েছেন তিনি। বুধবার বিকেলে নবান্ন থেকে বেরিয়ে এমনইটাই বোঝালেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তবে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন কি না, সরাসরি এই প্রশ্নের উত্তর এড়িয়েছেন শোভন। জানিয়েছেন, ‘মমতাদির ইচ্ছা বাস্তবায়িত করাই আমার কর্তব্য।’

এদিন নবান্ন থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শোভন বলেন, আমি নবান্ন ছাড়ার পরেও দিদির সঙ্গে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পরিবেশে দেখা হয়েছে। কখনও উনি আমাকে ডেকেছেন। কখনও কোনও অনুষ্ঠানে দেখা হয়েছে। আজ আবার দেখা হল।

তবে কি তৃণমূলে ফিরতে চলেছেন শোভন? সরাসরি জবাব এড়িয়ে তিনি বলেন, ‘আমার ছোটবেলা থেকে আজকের এই দিন পর্যন্ত প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতাদির ইচ্ছা বাস্তবায়িত করা আমার কর্তব্য বলে আমি মনে করি। আমার রাজনৈতিক জীবন ও অন্য কিছু, সবটাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রিক’।

তাহলে আজকের সাক্ষাতের তাৎপর্য কী? শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘মমতাদির কাছে আসব, চা খাব, মত বিনিময় করব, এটাই তো বাঞ্ছনীয়’।

বুধবার বেলা ৩.২০ মিনিটে নবান্নে পৌঁছন মমতার একদা আস্থাভাজন শোভন চট্টোপাধ্যায়। ৩.২৫ মিনিটে নবান্নের ১৪ তলায় পৌঁছে যান তিনি। বিকেল ৩.৩০ মিনিট থেকে শুরু হয় বৈঠক। প্রায় ১ ঘণ্টা ধরে কাননের সঙ্গে বৈঠক করেন দিদি।

 

বন্ধ করুন