বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌এখন কি ব্যবসা করার সময়’‌, রাজ্যের জন্য করোনা টিকার দাম নিয়ে তোপ মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় (‌ছবি স্ক্রিনগ্র‌্যাব)‌
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় (‌ছবি স্ক্রিনগ্র‌্যাব)‌

‘‌এখন কি ব্যবসা করার সময়’‌, রাজ্যের জন্য করোনা টিকার দাম নিয়ে তোপ মমতার

ভ্যাকসিনের দাম বাড়ানো নিয়ে এবার সিরামকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী

ভ্যাকসিনের দাম বাড়ানো নিয়ে এবার সিরামকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। বুধবার করোনা নিয়ে রাজ্যের প্রস্তুতির খতিয়ান তুলে ধরতে সাংবাদিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই ভ্যাকসিনের দাম বাড়ানোর প্রশ্নে তিনি সিরামের উদ্দেশ্যে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, ‘‌ আমি শুনেছি সিরাম কেন্দ্রকে ১৫০ টাকা করে দিচ্ছে। রাজ্যকে ৪০০ টাকা আর বেসরকারি হাসপাতালকে ৬০০ টাকা। এই ভেদাভেদ কেন করবে তাঁরা? এখন ‌মানুষকে সাহায্য করা উচিত, না কি এটা ব্যাবসা করার সময়?‌ কেন্দ্রকেও এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে হবে। এর বিরুদ্ধে আমি কড়া চিঠি লিখছি।’‌ পাশাপাশি তিনি এ—ও বলেন, ‘‌ আমাদের অক্সিজেনের অভাব রয়েছে। সেক্ষেত্রে অক্সিজেন নিয়ে কোথাও কালো বাজারি হচ্ছে কি না, বা কেউ ইচ্ছা করে দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে কি না, তা সরকারি আধিকারিকদের দেখতে বলেছি। তারাই অক্সিজেন সিলিন্ডারের ওপর নজর রাখছেন।’‌

তিনি আরও বলেন, ‘‌ কোনও রোগীকে যাতে হাসপাতাল থেকে ফিরতে না হয়, তার জন্য পুলিশকে সজাগ থাকতে বলেছি। কোনও গুরুতর অসুস্থ রোগী হাসপাতালে গিয়ে শয্যা না—পেলে, পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। তারাই সরকারি—বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ভরতি করার ব্যাবস্থা করবে। এছাড়াও এবার সেফ হোমগুলোর সঙ্গে হাসপাতালকে যুক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও ১০০ কোটি টাকার তহবিল গড়া হয়েছে। ২০০টি সেফ হোম করা হয়েছে। হাসপাতালে ১৩,০০০ শয্যা বাড়ানো হয়েছে। ৭,৩২৬টি অক্সিজেন যুক্ত শয্যা, সিসিইউ বাড়ানো হয়েছে। আরও ৭০ টা কোভিড হাসপাতালে শয্যা বাড়ানো হবে।’‌

তিনি আরও বলেন, ‘‌ কোনও রোগীকে যাতে হাসপাতাল থেকে ফিরতে না হয়, তার জন্য পুলিশকে সজাগ থাকতে বলেছি। কোনও গুরুতর অসুস্থ রোগী হাসপাতালে গিয়ে শয্যা না—পেলে, পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। তারাই সরকারি—বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ভরতি করার ব্যাবস্থা করবে। এছাড়াও এবার সেফ হোমগুলোর সঙ্গে হাসপাতালকে যুক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও ১০০ কোটি টাকার তহবিল গড়া হয়েছে। ২০০টি সেফ হোম করা হয়েছে। হাসপাতালে ১৩,০০০ শয্যা বাড়ানো হয়েছে। ৭,৩২৬টি অক্সিজেন যুক্ত শয্যা, সিসিইউ বাড়ানো হয়েছে। আরও ৭০ টা কোভিড হাসপাতালে শয্যা বাড়ানো হবে।’‌

|#+|

প্রসঙ্গত, ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারি সংস্থা সিরাম এদিন এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানিয়েছে, তাঁদের কাছ থেকে ভ্যাকসিন কিনতে হলে এবার থেকে সরকারি হাসপাতালকে প্রতি ভ্যাকসিনের ডোজ ৪০০ টাকা দিয়ে কিনতে হবে। আর বেসরকারি হাসপাতালকে সেটা ৬০০ টাকা দিয়ে কিনতে হবে।

বর্তমানে কোভিশিল্ড ২৫০ টাকা দামে সরকারি—বেসরকারি হাসপাতালে পাওয়া যাচ্ছে। তবে সেগুলোর দামও বাড়ল কি না, তাও স্পষ্ট করেনি সিরাম।

বন্ধ করুন