বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Kasba Suicide: মেহেন্দির ডিজাইনের খাতার শেষ পাতায় ‘নোট’ সরস্বতীর, কেন আত্মঘাতী কসবার তরুণী?

Kasba Suicide: মেহেন্দির ডিজাইনের খাতার শেষ পাতায় ‘নোট’ সরস্বতীর, কেন আত্মঘাতী কসবার তরুণী?

মৃত ডিজাইন আর্টিস্ট সরস্বতী দাস 

Kasba Suicide: পরিবার সূত্রে খবর, সরস্বতী খুব ভালো মেহেন্দি আঁকতেন। সেই মেহেন্দির ডিজাইন তিনি এঁকে রাখতেন খাতার পাতায়। তাঁর ডিজাইন ভরা একটি খাতার শেষ পাতাতেই মিলল তাঁর মায়ের জন্য লেখা ‘শেষ বার্তা।’

পরপর তিনজন মডেলের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে হতবাক তিলোত্তমা। এই আবহে শনিবার ফের এক তরুণীর অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘটল কসবায়। পেশায় মেক-আপ আর্টিস্ট এই ১৮ বথর বয়সি তরুণীর নাম সরস্বতী দাস। শনিবার রাতে ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় ১৮ বছর বয়সি এই তরুণীর দেহ। কসবায় একটি আবাসনে মা মাসি এবং দিদিমার সঙ্গে থাকতেন সরস্বতী। জানা যায়, শনিবার রাতে বাড়ির সকলের সঙ্গে ভালোভাবেই কথা বলেছেন। এই ঘটনার নেপথ্যে কোনও সম্পর্কের টানাপোড়েন থাকতে পারে বলে মনে করছেন পরিবারের সদস্যরা।

পরিবার সূত্রে খবর, সরস্বতী মেক আপ আর্টিস্টের কাজ করতেন। মাঝেমধ্যে ফটোশুটের কাজও করতেন। খুব ভালো মেহেন্দি আঁকতেন। সেই মেহেন্দির ডিজাইন তিনি এঁকে রাখতেন খাতার পাতায়। তাঁর ডিজাইন ভরা একটি খাতার শেষ পাতাতেই মিলল তাঁর মায়ের জন্য লেখা ‘শেষ বার্তা।’ নোটে লেখা, ‘আমার জীবনের সবচেয়ে সুন্দর এবং সবচেয়ে প্রিয় মানুষ আমার মাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তুমি সব সময় আমার সঙ্গে ছিলে, আমার জন্যে ছিলে, তাই তোমাকে ধন্যবাদ।’

রবিবারই সরস্বতীর দেহ ময়নাতদন্তের জন্যে পাঠানো হয়। প্রাথমিক তদন্তের পুলিশের অনুমান সরস্বতী আত্মহত্যাই করেছেন। তবে এর নেপথ্যে মূল কারণ খুঁজে বের করতে তদন্ত শুরু হয়েছে। জানা গিয়েছে, শনিবার গভীর রাতে সরস্বতীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান তাঁর দিদা। নাতনিকে বাঁচানোর জন্য দড়িটি কেটে ফেলেন। তারপর চিৎকার শুরু করেন। কিন্তু তার আগেই সব শেষ হয়ে গিয়েছিল। দিদার দাবি, অন্যান্য রাতের মতোই শুয়ে কারও সঙ্গে ফোনে কথা বলছিলেন সরস্বতী। এই ফোনালাপের সঙ্গে সরস্বতীর মৃত্যুর কোনও সম্পর্ক আছে কি না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

বন্ধ করুন