বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > হ্যাক হল কলকাতার একাধিক মহিলার WhatsApp, অভিযোগ পেয়ে তৎপর পুলিশ

হ্যাক হয়ে যাচ্ছে মহিলাদের হোয়্যাটসঅ্যাপ!‌ গোপনীয় তথ্য ফাঁস হয়ে গিয়ে বিপাকে পড়ছেন শহরের মহিলারা। এমনই অভিযোগ জমা পড়েছে পুলিশের কাছে। একাধিক অভিযোগ পেয়ে এবার তৎপর হল কলকাতা পুলিশ।

ঘটনার সূত্রপাত দক্ষিণ কলকাতায়। আলিপুর এলাকার বেশ কয়েকজন মহিলাদের হোয়্যাটসঅ্যাপের হ্যাক হওয়ার বিষয়ে জানতে পারে পুলিশ। অভিযুক্তরা তথ্য ফাঁসের অভিযোগ করেন। অভিযোগের সংখ্যা বাড়তে থাকায় তদন্ত শুরু করা হয়। তদন্তে নেমে অভিযোগকারীদের হোয়্যাটসঅ্যাপের, ফোনের আইপি অ্যাড্রেস যাচাই করে তদন্তকারীরা দেখেন, হোয়্যাটসঅ্যাপের গঠনে কোনও গলদ না থাকলেও, ব্যবহারকারীদের সামান্য ভুল-‌ত্রুটির সুযোগ নিয়ে সেগুলো হ্যাক করা হয়েছে। কীভাবে?

‌বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ফেসবুক বা হোয়্যাটসঅ্যাপের অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে, বেশ কয়েকটি ব্যক্তিগত তথ্য দিতে হয়, যেমন ফোন নম্বর, ইমেল আইডি ইত্যাদি। আবার এই তথ্যগুলোর সঙ্গে অনেকের একাধিক অ্যাকাউন্টও যুক্ত থাকে। যেমন, ফেসবুক খুলতে গেলেও এই একই তথ্য দিয়ে খুলতে হয়। এমনকী, ইমেল আইডি খুলতে গেলেও একই তথ্যের প্রয়োজন হয়। আর ফেসবুকে কোনও কারণে ফোন নম্বর লক না- করলে, যে কেউ সেটা অ্যাকাউন্টে ঢুকলেই দেখতে পাবেন। সেক্ষেত্রে হোয়্যাটসঅ্যাপের অ্যাকাউন্ট খোলার সময় অনেকে ইমেল আইডি আর ফোন নম্বর পাল্টান না, একই থাকে। সেই জায়গাতেই চোরা ফাঁক থেকে যায়। হ্যাকাররা ফেসবুক থেকে ফোন নম্বর জোগাড় করে তা দিয়ে অনায়াসেই অসৎ ব্যাবহার করতে পারে। আর অন্যদিকে, হোয়্যাটসঅ্যাপের অ্যাকাউন্ট ইনস্টল করতে গেলে, সংস্থা ব্যবহারকারীর মোবাইলে ওটিপি পাঠায়, সেই ওটিপি যদি কোনওভাবে ফাঁস হয়ে যায়, তাহলে সহজেই অ্যাকাউন্টটি হ্যাকারদের দখলে চলে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে হ্যাকাররা অন্য মোবাইল থেকে সংশ্লিষ্ট হোয়্যাটসঅ্যাপ ইনস্টল করেও যদি চালায়, প্রকৃত মালিক সেটা বুঝতেও পারবেন না।

এই বিষয়ে কলকাতা পুলিশের তরফে জয়েন্ট সিপি ক্রাইম টুইট করে জানিয়েছেন, সাম্প্রতিককালে ওটিপি শেয়ার করার প্রবণতা বাড়ছে। তিনি সতর্ক করেছেন, যদি কোনও ব্যক্তি কারোর খুব ঘনিষ্ঠও হন, তাহলেও কোনও ধরনের ওটিপি শেয়ার করার থেকে বিরত থাকা উচিত। তবে পুলিশ তদন্ত চালালেও এই ঘটনাগুলোয় কোনও গ্রেফতারি না হওয়ায় হোয়্যাটসঅ্যাপের হ্যাকিংয়ের কারণ বা কী ধরণের প্রতারণা করা হচ্ছে, সে বিষয়ে ধোঁয়াশায় র‌য়েছেন তদন্তকারীরা।

বন্ধ করুন