বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'ফাঁস' হওয়া প্রশ্নের সঙ্গে কোনও মিল নেই আসলের, মাধ্যমিকে মুখরক্ষা পর্ষদের
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

'ফাঁস' হওয়া প্রশ্নের সঙ্গে কোনও মিল নেই আসলের, মাধ্যমিকে মুখরক্ষা পর্ষদের

  • মাধ্যমিকে প্রশ্নফাঁস রুখতে এবছর আরও কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। কিন্তু তাতেও প্রথম দিন বাংলা প্রশ্ন ফাঁস রোখা যায়নি।

মাধ্যমিকের দ্বিতীয় দিনে ইংরাজির প্রশ্নপত্র ফাঁসের যে অভিযোগ উঠেছিল তা সঠিক নয়। পরীক্ষা শেষের পর প্রশ্নপত্র মিলিয়ে দেখা যায়। কোনও মিল নেই ২ প্রশ্নপত্রের।

বুধবার ছিল মাধ্যমিকের ইংরাজি পরীক্ষা। মঙ্গলবারের মতোই এদিন পরীক্ষা শুরু কিছুক্ষণের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপে ঘুরতে থাকে একটি প্রশ্নপত্র। বেলা ১২টায় পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই একটি প্রশ্নপত্র হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। দাবি করা হয় সেটিই ইংরাজির প্রশ্নপত্র। কিন্তু পরীক্ষা শেষের পর দেখা যায় প্রশ্নপত্রটি ভুয়ো।

মাধ্যমিকে প্রশ্নফাঁস রুখতে এবছর আরও কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। কিন্তু তাতেও প্রথম দিন বাংলা প্রশ্ন ফাঁস রোখা যায়নি। কিন্তু দ্বিতীয় দিনে মোটের ওপর সফল তারা। ওই একটি প্রশ্নপত্র ছাড়া এদিন সংবাদমাধ্যমের কাছে অন্য কোনও প্রশ্নপত্র এসে পৌঁছয়নি।

ওদিকে প্রশ্নপত্রের টিকটক ভিডিয়ো করে আপলোড করায় মালদার সামসিকে এক ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার পরীক্ষা বাতিল বলে ঘোষণা করেছে পর্ষদ। অভিযোগ, পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পর মোবাইল ফোন দিয়ে প্রশ্নপত্রের ভিডিয়ো করে টিকটকে আপলোড করে সে। এর পরই বিষয়টি জানতে পারেন পরীক্ষকরা। তাঁরা খবর দেন থানায়।



বন্ধ করুন