বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নতুন করে কর্পোরেট ধাঁচে তৈরি হচ্ছে তৃণমূল ভবন, আপাতত কাজ অস্থায়ী অফিসে
অস্থায়ী কার্যালয় তৈরি হয়েছে। ছবি সৌজন্য–এএনআই।
অস্থায়ী কার্যালয় তৈরি হয়েছে। ছবি সৌজন্য–এএনআই।

নতুন করে কর্পোরেট ধাঁচে তৈরি হচ্ছে তৃণমূল ভবন, আপাতত কাজ অস্থায়ী অফিসে

  • ইএম বাইপাসের ধারে পুরনো ভবনে ঢোকার মুখে রাস্তার ধারে নতুন অস্থায়ী কার্যালয় তৈরি হয়েছে।

দল বড় হয়েছে। আরও বড় হবে। তাই দলের কার্যালয়ও বড় করতে হবে। তবে নতুন তৃণমূল ভবন তৈরি হতে এখনও দু’‌বছর সময় লাগবে। কিন্তু দলীয় কাজ তো চালিয়ে যেতে হবে। তাই পাকাপাকি ভবন যতক্ষণ না পর্যন্ত তৈরি হচ্ছে ততক্ষণ কাজ চালাবার জন্য করা হল অস্থায়ী কার্যালয়। দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি ফিতে কেটে তার উদ্বোধন করেছেন। ইএম বাইপাসের ধারে পুরনো ভবনে ঢোকার মুখে রাস্তার ধারে নতুন অস্থায়ী কার্যালয় তৈরি হয়েছে। নতুন অস্থায়ী পার্টি অফিস কেমন হল তা দেখে নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কেমন সেই অস্থায়ী কার্যালয়?‌ পুরনো ভবনে ঢোকার মুখে প্রায় রাস্তার গায়েই ছোটখাটো ছিমছাম একতলা লম্বা ঘর। সবুজ রং করা রয়েছে। ছাদটি অ্যাসবেসটাসের। দু’টি ঘর রয়েছে নেতৃত্বের বসার জন্য। সঙ্গে ছোট একটি কনফারেন্স হল। এভাবেই অস্থায়ী এই শিবির চালু করা হল তৃণমূল ভবনের সামনেই। পুরনো ভবনটিতে সংস্কারের কাজ চলছে। গোটা ভবনটিই নতুন করে তৈরি হচ্ছে।

আপাতত এখান থেকেই দলের আনুষ্ঠানিক কাজ চলবে। তার সামনেই তৈরি হয়েছে স্থায়ী শহিদ বেদী। তিনটি ধাপ তৈরি হয়েছে। গোটাটাই রাজ্য সভাপতির করে দেওয়া নকশা ধরে তৈরি হয়েছে। ছোট হলেও কার্যালয় সম্পর্কে খোঁজ নিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, তাঁকে ভিডিও করে দেখানো হয়েছে সবটাই।

জানা গিয়েছে, নতুন তৃণমূল ভবনটি হবে তিন থেকে চারতলার। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সেখানে স্থান পাবে বলে খবর। এই নয়া ভবনের সামনে থাকবে একটি ক্যান্টিন। জেলা থেকে কর্মী–সমর্থক–নেতারা এলে সেখানে খেতে পারবেন। মূল ভবনে নেতৃত্বের থাকার ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। একটি অত্যাধুনিক বড় কনফারেন্স হল থাকবে। পুরোপুরি কর্পোরেট ধাঁচে নির্মিত হবে নতুন তৃণমূল ভবন। সূত্রের খবর, এই প্রযুক্তির বিষয়ে প্রশান্ত কিশোর এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আলোচনা করেছেন।

বন্ধ করুন