বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পুলিশকর্মীর ATMএর তথ্য হাতানোর চেষ্টা, পরে পুলিশেরই ফাঁদে পা দিয়ে গ্রেফতার যুবক
পুলিশের ATM'র তথ্য হাতানোর চেষ্টা, পাল্টা পুলিশের ফাঁদে পা দিয়ে গ্রেফতার যুবক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

পুলিশকর্মীর ATMএর তথ্য হাতানোর চেষ্টা, পরে পুলিশেরই ফাঁদে পা দিয়ে গ্রেফতার যুবক

  • ঘটনাটি পূর্ব যাদবপুর থানা এলাকার। ধৃত যুবকের নাম রাজেশ মন্ডল।

করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইনে প্রতারণা বেড়ে চলেছে। এর ফলে বেড়েছে সাইবার ক্রাইম। মহানগর কলকাতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন জেলায় প্রায়ই এই ধরনের প্রতারণার শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। যার মধ্যে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ব্যাঙ্ক জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। কিছুদিন আগে কলকাতার রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন অধ্যাপিকার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে সমস্ত ঢাকা তুলে নিয়েছিল প্রতারকরা। সাইবার ক্রাইম নিয়ে নিয়মিত প্রচার চালিয়ে বেড়াচ্ছে পুলিশ। এবার খোদ পুলিশকর্মীকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলার চেষ্টা করল এক যুবক। আর তা করতে গিয়েই পাল্টা পুলিশের ফাঁদে পা দিয়ে ফেলল প্রতরকই। ওই যুবককে হাতেনাতে ধরল পুলিশ।

এই ঘটনাটি পূর্ব যাদবপুর থানা এলাকার। ধৃত যুবকের নাম রাজেশ মন্ডল। ওই যুবক ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা। তবে পূর্ব যাদবপুরে থাকে। পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, গতকাল শনিবার রাজেশ মন্ডল পূর্ব যাদবপুর থানার এক পুলিশকর্মীকে ফোন করে এটিএমের যাবতীয় তথ্য চেয়ে বসে। তবে প্রতারক যে একজন পুলিশকর্মীকে ফোন করেছিল তা একেবারেই তার জানা ছিল না। ঘটনায় ব্যাঙ্ক জালিয়াতির গন্ধ পেয়েই ওই পুলিশকর্মীও পাল্টা টোপ দেয় ওই যুবককে। সে ক্ষেত্রে পুলিশকর্মী জানান, তিনি এসব বিষয় বোঝেন না। তাই তার কাছে আসলে তিনি সমস্ত তথ্য তাকে দিয়ে দেবেন।

সেইমতোই প্রস্তুত ছিল পুলিশ। এরপর ওই ব্যক্তি পূর্ব যাদবপুর থানা এলাকার ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্কের কাছে আসতেই ওই যুবকের গতিবিধি দেখে সন্দেহ পুলিশের। তারপরেই যুবককে হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার কাছ থেকে নগদ ৪০ হাজার টাকা উদ্ধার হয়েছে। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পেরেছে, এই ঘটনায় আরও অনেকে জড়িত রয়েছে যারা শহরে ব্যাঙ্ক জালিয়াতি চক্র চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

বন্ধ করুন