বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Murder: সোনাগাছিতে হাড়হিম করা খুন, যৌনকর্মীর গলার নলি কাটা দেহ উদ্ধার
গলার নলি কেটে খুন করা হয় যৌনকর্মীকে

Murder: সোনাগাছিতে হাড়হিম করা খুন, যৌনকর্মীর গলার নলি কাটা দেহ উদ্ধার

  • শনিবার সন্ধ্যেবেলায় প্রার্থনার ঘরে আসে পুরনো খদ্দের। তারপর কখন সে বেরিয়ে গিয়েছে কেউ তা দেখতে পায়নি। কিন্তু প্রার্থনা অনেকক্ষণ ঘর থেকে বেরচ্ছে না দেখে পাশে যারা ছিল তারা দরজা ঠেলে। তখনই রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখে। দরজা টেনে, পর্দা দিয়ে ওই খদ্দের চম্পট দেয়।

কলকাতার সোনাগাছির দুর্গাচরণ স্ট্রিটে যৌনকর্মীর খুনের ঘটনা ঘটল। গলার নলি কেটে খুন করা হয় এক যৌনকর্মীকে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনার পাশাপাশি দেখা গিয়েছে ঘরের নানা জায়গায় রক্তের দাগ। খোলা আলমারি লণ্ডভণ্ড হয়ে রয়েছে। আর ঘরেই পড়ে রয়েছে যৌনকর্মী। সোনাগাছির ওই যৌনকর্মীকে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান। কী কারণে এই খুন খতিয়ে দেখছে বটতলা থানার পুলিশ।

ঠিক কী ঘটেছে সোনাগাছিতে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, সোনাগাছির ৯৯ নম্বর বিল্ডিংয়ে গলার নলি কাটা অবস্থায় উদ্ধার হয় যৌনকর্মীর দেহ। ঘরের আলমারি ভাঙা এবং লণ্ডভণ্ড হয়ে পড়ে ছিল। রক্তাক্ত যৌনকর্মীর দেহ পড়েছিল মাটিতে। প্রতিবেশীরা ওই মহিলাকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন। তাঁরাই খবর দেন পুলিশে। ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে ওই যৌনকর্মীর শরীরে।

ঠিক কী তথ্য পেয়েছে পুলিশ?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত যৌনকর্মীর নাম প্রার্থনা মুখোপাধ্যায়। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘরের অবস্থা দেখে মনে করা হচ্ছে, কিছু খোঁজা হচ্ছিল। যাতে বাধা পেয়ে এই খুন। পরে লুটপাট হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। পরিচিত খদ্দেরই এই কাজের নেপথ্যে রয়েছে বলে অনুমান পুলিশের। তদন্ত শুরু হয়েছে।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ সূত্রের খবর, শনিবার সন্ধ্যেবেলায় প্রার্থনার ঘরে আসে পুরনো খদ্দের। তারপর কখন সে বেরিয়ে গিয়েছে কেউ তা দেখতে পায়নি। কিন্তু প্রার্থনা অনেকক্ষণ ঘর থেকে বেরচ্ছে না দেখে পাশে যারা ছিল তারা দরজা ঠেলে। তখনই রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখে। দরজা টেনে, পর্দা দিয়ে ওই খদ্দের চম্পট দেয়। এবার ঘটনাস্থলে আসেন হোমিসাইড শাখার টিমও।

বন্ধ করুন