বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আদালতে ধমক খেয়ে শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত রাজ্যের, পুজোর আগেই শুরু হবে প্রক্রিয়া
ব্রাত্য বসু। ছবি: পিটিআই

আদালতে ধমক খেয়ে শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত রাজ্যের, পুজোর আগেই শুরু হবে প্রক্রিয়া

  • এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নবনিযুক্ত সভাপতি, SSCর সভাপতিসহ শিক্ষা দফতরের শীর্ষ আধিকারিকরা। সেখানে আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়েছে পুজোর আগেই ২১ হাজার শূন্যপদে শুরু হবে নিয়োগপ্রক্রিয়া। দুর্নীতি এড়াতে নিয়োগবিধিতে ব্যাপক রদবদলের সম্ভাবনা রয়েছে।

রাজ্যে নতুন করে শুরু হচ্ছে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া। তবে SSC আন্দোলনকারীদের প্রত্যেকের চাকরি নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। সোমবার শিক্ষা দফতরের এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে একথা বললেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তিনি জানিয়েছেন, পুজোর আগেই নতুন করে শুরু হবে শিক্ষক নিয়োগপ্রক্রিয়া।

এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নবনিযুক্ত সভাপতি, SSCর সভাপতিসহ শিক্ষা দফতরের শীর্ষ আধিকারিকরা। সেখানে আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়েছে পুজোর আগেই ২১ হাজার শূন্যপদে শুরু হবে নিয়োগপ্রক্রিয়া। দুর্নীতি এড়াতে নিয়োগবিধিতে ব্যাপক রদবদলের সম্ভাবনা রয়েছে। উচ্চ প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক তিন ধাপেই হবে শিক্ষক নিয়োগ। সঙ্গে সমান্তরালভাবে চলবে প্রধান শিক্ষক নিয়োগপ্রক্রিয়াও।

তবে SSC-র আন্দোলনকারীদের প্রত্যেকের চাকরির নিশ্চয়তা দিতে পারেননি ব্রাত্যবাবু। এমনকী প্রাথমিকের আন্দোলনকারীদের অনেকের দাবি ন্যায্য নয় বলে মনে করছেন তিনি। এদিন তিনি বলেন, সহানুভূতির সঙ্গে আইনকে মেশাতে হবে।

বলে রাখি, গত সপ্তাহেই আদালত স্পষ্ট করে দিয়েছে নতুন নিয়োগে তাদের তরফে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। এমনকী ফের এ নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরির চেষ্টা হলে আদালত পদক্ষেপ করবে বলে জানান বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এর পরই চাপ বেড়ে গিয়েছে রাজ্য সরকারের ওপর। এতদিন আদালত নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা জারি করে রেখেছে বলে দাবি করে বেড়াচ্ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার আদালতের মন্তব্যের পর কিছু না করলে সরাসরি নিয়োগে সরকারি সদিচ্ছা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যেত। সময়মতো সেই সৌজন্যটুকু সেরে রাখলেন মন্ত্রীমশাই।

 

 

বন্ধ করুন