বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজের সিদ্ধান্ত দু’‌সপ্তাহের মধ্যে, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের
মুকুল রায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
মুকুল রায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজের সিদ্ধান্ত দু’‌সপ্তাহের মধ্যে, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

  • আজ সুপ্রিম কোর্টে মুকুল রায়ের পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল।

মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ কী খারিজ হয়ে যাবে?‌ এই প্রশ্নই এখন রাজ্য–রাজনীতিতে ঘুরপাক খাচ্ছে। কারণ আজ, সোমবার সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় মুকুল রায়ের দলত্যাগ সংক্রান্ত মামলার নিষ্পত্তি করবেন। আর তার পর থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ খারিজ নিয়ে জল্পনা। আজ সুপ্রিম কোর্টে মুকুল রায়ের পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল।

এদিন সুপ্রিম কোর্টে যুক্তি খাঁড়া করা হয়, মুকুল রায় দলত্যাগ করেননি। মুকুল রায় অন্য রাজনৈতিক দলের মঞ্চে সৌজন্য রক্ষা করতে গিয়েছিলেন। তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেননি। মুকুল রায় বিজেপিতেই আছেন। বিজেপিও মুকুল রায়কে সাসপেন্ড করেননি। তাই তাঁর দল পরিবর্তনের কোনও প্রশ্নই আসছে না। যদিও এই সব কথায় বিশেষ আমল দেননি দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

উল্লেখ্য, একুশের নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে কৃষ্ণনগর উত্তর আসন থেকে জয়ী হয়েছিলেন মুকুল রায়। তার কিছুদিন পরই দেখা যায় তিনি পুরনো দল তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। তখন থেকেই তাঁর বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইনে ব্যবস্থা নিতে উঠে পড়ে লাগে বিজেপি। এই নিয়ে বিধানসভার স্পিকার, কলকাতা হাইকোর্ট এবং পরে সুপ্রিম কোর্টে যায় বিজেপি।

কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেও তাঁর মুখে বারবার শোনা গিয়েছে, ভারতীয় জনতা পার্টি বিপুলভাবে জয়ী হবে। তৃণমূল কংগ্রেস পর্যদুস্ত হবে। আবার কখনও বলেছেন, ভারতীয় জনতা পার্টি মানেই তো তৃণমূল কংগ্রেস। এখন মুকুল রায় অসুস্থ বলে তুলে ধরা হচ্ছে। যদিও তিনি এখনও রাজ্য বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান।

বন্ধ করুন