বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যটা চিন হয়ে যাবে, কেন এমন আশঙ্কা দিলীপ ঘোষের !
দিলীপ ঘোষ, বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি  (PTI,) (HT_PRINT)
দিলীপ ঘোষ, বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি  (PTI,) (HT_PRINT)

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যটা চিন হয়ে যাবে, কেন এমন আশঙ্কা দিলীপ ঘোষের !

  • আগামী পুরভোটে সন্ত্রাস কীভাবে ঠেকানো যাবে সেটা নিয়ে চিন্তার ভাঁজ দিলীপ ঘোষের কপালে।

রাজ্যের উপনির্বাচনের সব আসনেই ভরাডুবি বিজেপির। ভোটের ফলাফল হতাশ করেছে গেরুয়া শিবিরকে। আর এবার শোচনীয় পরাজয়ের পরে সেই সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলেই সরব হয়েছেন বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য় সভাপতি দিলীপ ঘোষ। পাশাপাশি আগামী পুর নির্বাচনেও ভয়াবহ সন্ত্রাসের আশঙ্কা করছেন তিনি। 

তবে এই সন্ত্রাসের প্রসঙ্গেই এবার দিলীপ ঘোষের আশঙ্কা রাজ্যের অবস্থা চিনের মতো হয়ে যাবে। তাঁর দাবি, একটাই দল ভোটে দাঁড়াবে। তাকেই সবাই ভোট দেবে। বাকি দলের অস্তিত্ব মুছে দেওয়া হবে। এভাবেই উপনির্বাচন হয়েছে। এবারের উপনির্বাচনে প্রার্থীকেও ভোট দেওয়া হয়নি বলে দাবি করেছেন দিলীপ ঘোষ।

তবে শুধু উপনির্বাচনেই নয়, আগামী পুরভোটে সন্ত্রাস কীভাবে ঠেকানো যাবে সেটা নিয়ে চিন্তার ভাঁজ দিলীপ ঘোষের কপালে। ২০১৫ সালের পুরভোটের সন্ত্রাসের কথাও স্মরণ করিয়ে দেন তিনি। তাঁর দাবি, বিরোধী দলের পোলিং এজেন্টরাও মার খেয়েছে ও কলকাতাতেও একই জিনিস হয়েছে। শাসকদল আবার সেটাই করবে। দাবি দিলীপ ঘোষের।

অন্যদিকে বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় দলবদল করতে পারেন এনিয়েও নানা জল্পনা ছড়িয়েছে। তবে দিলীপ ঘোষের দাবি, কর্মীরা আদর্শের জন্য কাজ করেন। উপনির্বাচনটা একটা ব্য়তিক্রমী ব্যাপার। ওরা তো জিততেই দেবে না। আমাদের প্রার্থীদের প্রচার করতেই দেয়নি।সব জায়গায় বাধা দেওয়া হচ্ছে। বিজেপির কার্যকর্তাদের বিরুদ্ধে চক্রান্ত হচ্ছে। দলের মনোবল ভাঙার জন্য বাজারে নানা গুজব রটানো হচ্ছে।

 

বন্ধ করুন