বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আলাপনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের তোড়জোড় করায় কেন্দ্রকে তুলোধোনা করল তৃণমূল
মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে সুখেন্দুশেখর রায় ও সৌগত রায়
মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে সুখেন্দুশেখর রায় ও সৌগত রায়

আলাপনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের তোড়জোড় করায় কেন্দ্রকে তুলোধোনা করল তৃণমূল

  • তাঁদের দাবি, আলাপনবাবুকে দিল্লি তলব করার সময়ও রাজ্য সরকারের সঙ্গে কোনও পরামর্শ করেনি কেন্দ্র। যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো মেনে এই ক্ষেত্রে রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা করেই কেন্দ্র IAS বা IPS আধিকারিককে কেন্দ্রীয় দায়িত্বে তলব করতে পারে।

রাজ্যের প্রক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকারের ব্যবস্থা গ্রহণের তৎপরতার বিরোধিতায় সরব হল তৃণমূল। তাদের দাবি, বিধানসভা নির্বাচনের হার মানতে না পেরে প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে বারবার আলাপনবাবুকে হেনস্থা করছে বিজেপি পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকার।

এদিন তৃণমূলের তরফে সাংবাদিক বৈঠকে সাংসদ সৌগত রায় ও সুখেন্দুশেখর রায় আলাপনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপের তৎপরতা দেখানোয় কেন্দ্রের তুমুল সমালোচনা করেন। তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে, সমস্ত কিছু হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্দেশে। বিজেপির এই প্রতিহিংসার রাজনীতিকে নিন্দার ভাষা নেই। আসলে বিধানসভা নির্বাচনে হার মানতে পারছে না তারা।

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেওয়া কেন্দ্রের চিঠিকে হয়রান করার চক্রান্ত বলে দাবি করে ২ বরিষ্ঠ তৃণমূল নেতা বলেন, ‘কোনও IAS আধিকারিক প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে যাবেন কি না তা ঠিক করে রাজ্য সরকার। সেদিন আলাপনবাবুর কাছে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে হাজির থাকার কোনও নির্দেশ ছিল না। তবে কেন্দ্রের তরফে ধরে নেওয়া হয়েছিল তিনি হাজির থাকবেন। তার ভিত্তিতে কাউকে দোষী সাব্যস্ত করা যায় না।’

সঙ্গে তাঁদের দাবি, আলাপনবাবুকে দিল্লি তলব করার সময়ও রাজ্য সরকারের সঙ্গে কোনও পরামর্শ করেনি কেন্দ্র। যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো মেনে এই ক্ষেত্রে রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা করেই কেন্দ্র IAS বা IPS আধিকারিককে কেন্দ্রীয় দায়িত্বে তলব করতে পারে। সেই বিধিও মানেনি কেন্দ্রীয় সরকার।

রাজনৈতিক মহলের ধারণা, আলাপনের বিরুদ্ধে আঁটঘাঁট বেঁধেই নেমেছে কেন্দ্র। ফলে এই বিতর্কের অবসান আদালত ছাড়া অন্য কোথাও হওয়ার সম্ভাবনা কম।

 

বন্ধ করুন