ট্যাবলো নেই বাংলার (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
ট্যাবলো নেই বাংলার (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

প্রজাতন্ত্র দিবসে নেই বাংলার ট্যাবলো, পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তৃণমূলের

  • সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির বিরোধিতায় পথে নেমেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে জায়গা পায়নি পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো। তাতে রাজনৈতিক পক্ষপাতিত্বের ছায়া দেখছে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। তৃণমূলের একটি অংশের দাবি, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পথে নামায় রাজ্যের ট্যাবলো বাছাই করা হয়নি।

চলতি বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে দিল্লির রাজপথে ট্যাবলোর নামানোর মোট ৫৬টি আবেদন জমা পড়েছিল। পশ্চিমবঙ্গ-সহ ৩২টি রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আবেদন জানিয়েছিল। বাকি আবেদন এসেছিল কেন্দ্রের বিভিন্ন মন্ত্রক থেকে।

পাঁচ দফায় বৈঠকের পর প্রাথমিকভাবে ২২টি প্রস্তাব বেছে নিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কমিটি। তাতে জায়গা পায়নি সবুজশ্রী, কন্যাশ্রী ও জল ধরো জল ভরো নিয়ে বাংলার ট্যাবলো। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এক মুখপাত্র বলেন, 'দুটি বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবেলো দেখেছে কমিটি। থিম, চিন্তাভারা, ডিজাউনের উপর ভিত্তি করে প্রস্তাবগুলি খতিয়ে দেওয়া হয়েছে।' তাঁর দাবি, কম সময়ের কারণে সব ট্যাবলো প্রদর্শিত হয় না। সবথেকে ভালো ট্যাবলোগুলিই দিল্লির রাজপথে নামে।

যদিও তাতে অবশ্য রাজনৈতিক চাপানউতোর থামেনি। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, 'বাংলাকে বাদ দেওয়া অত্যন্ত বৈষম্যের হবে। বাংলা সমৃদ্ধ ঐতিহ্যের নিদর্শন বহন করে। সেই বাংলাকেই বাদ দেওয়ার ফলে মোদী-শাহ জুটির পক্ষপাতিত্বের ছবিটা সামনে এসেছে।'

প্রসঙ্গত, মমতা সরকারের আমলে ছৌ নাচ নিয়ে ট্যাবলো প্রথম পুরস্কার পেয়েছিল। কিন্তু, কন্যাশ্রী নিয়ে ট্যাবলো প্রদর্শনে রাজ্য একাধিকবার উদ্যোগী হলেও কোনওবারই তা সফল হয়নি।

বন্ধ করুন