বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > জেলায় জেলায় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম বিক্রির অভিযোগ তৃণমূলেরই বিরুদ্ধে

জেলায় জেলায় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম বিক্রির অভিযোগ তৃণমূলেরই বিরুদ্ধে

ফাইল ছবি

অভিযোগ, রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে নবান্নের গ্রিভ্যান্স সেলে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম বিক্রির অভিযোগ আসছে। কোথাও ফর্ম বিক্রি হচ্ছে তৃণমূল পার্টি অফিস থেকে তো কোথাও বাড়িতেই দোকান খুলে বসেছেন পঞ্চায়েত সদস্য, ওয়ার্ড কোঅর্ডিনেটররা।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম মিলবে শুধুমাত্র দুয়ারে সরকার ক্যাম্প থেকে। নবান্ন থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী অন্য কোনও জায়গা থেকে ফর্ম বিলি করলে পদক্ষেপেরও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। কিন্তু দলনেত্রীর নির্দেশ শুনছেন না তৃণমূল নেতাকর্মীদের একাংশই। অভিযোগ, কেউ পার্টি অফিস থেকে, কেউ বাড়ি থেকে টাকার বিনিময়ে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম বিক্রি করছেন তাঁরা। যা নিয়ে ভুরিভুরি অভিযোগ জমা পড়ছে নবান্নের গ্রিভ্যান্স সেলে।

গত বৃহস্পতিবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম মিলবে শুধুমাত্র দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প থেকে। সোমবার থেকে শুরু হবে ক্যাম্প। সেখান থেকে ফর্ম নিয়ে আবেদন করতে পারবেন মহিলারা। জালিয়াতি রুখতে ফর্মে ইউনিক নম্বর বসাবে সরকার। দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প ছাড়া অন্য কোনও জায়গা থেকে ফর্ম নিলে তা গ্রাহ্য হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তৃণমূল নেত্রীর কথা শুনছে না তাঁর দলের নেতাকর্মীরাই।

অভিযোগ, রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে নবান্নের গ্রিভ্যান্স সেলে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম বিক্রির অভিযোগ আসছে। কোথাও ফর্ম বিক্রি হচ্ছে তৃণমূল পার্টি অফিস থেকে তো কোথাও বাড়িতেই দোকান খুলে বসেছেন পঞ্চায়েত সদস্য, ওয়ার্ড কোঅর্ডিনেটররা। ৫ – ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের ফর্ম।

অভিযোগ পেয়ে জেলা প্রশাসনকে কড়া পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নবান্নের পক্ষ থেকে। কোথাও ফর্ম বিক্রির খবর এলেই সঙ্গে সঙ্গে গ্রেফতারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

বন্ধ করুন