বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনার দাপাদাপির মধ্যেও রাজ্যে কমল পরীক্ষার সংখ্যা, শনিবার তবু কমল না সংক্রমণ
কলকাতার এক করোনা হাসপাতালে জনৈক রোগী। (PTI)
কলকাতার এক করোনা হাসপাতালে জনৈক রোগী। (PTI)

করোনার দাপাদাপির মধ্যেও রাজ্যে কমল পরীক্ষার সংখ্যা, শনিবার তবু কমল না সংক্রমণ

  • এদিন রাজ্যে ৬৩,৫১৮টি করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। যার মধ্যে ১৮,৮০২টি নমুনায় সংক্রমণ ধরা পড়েছে। রাজ্যে সংক্রমণের বার বেড়ে হয়েছে ২৯.৬০ শতাংশ। কলকাতায় ৭,৩৩৭, উত্তর ২৪ পরগনায় ৩,২৮৬, হাওড়ায় ১,৪৮৩ ও পশ্চিম বর্ধমানে ১,০০৬টি নমুনায় সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে।

রাজ্যজুড়ে করোনার দাপাদাপির মধ্যেও কমল পরীক্ষার সংখ্যা। তার পরও কমল না রাজ্যে সংক্রমণ বৃদ্ধির ধারা। শনিবার স্বাস্থ্য দফতরের করোনা বুলেটিন অনুসারে আগের দিনের থেকে অন্তত ৫,৫০০ নমুনা কম পরীক্ষা হয়েছে। তার পরও রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণ বেড়ে হয়েছে ১৮,৮০২। যা শুক্রবার ছিল ১৮,২১৩। রাজ্য সরকার যখন বার বার করোনার নমুনা পরীক্ষা বাড়ানোর কথা বলছে তখন সপ্তাহের মাঝে পরীক্ষা কমল কী করে সেই প্রশ্ন উঠছে।

এদিন রাজ্যে ৬৩,৫১৮টি করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। যার মধ্যে ১৮,৮০২টি নমুনায় সংক্রমণ ধরা পড়েছে। রাজ্যে সংক্রমণের বার বেড়ে হয়েছে ২৯.৬০ শতাংশ। কলকাতায় ৭,৩৩৭, উত্তর ২৪ পরগনায় ৩,২৮৬, হাওড়ায় ১,৪৮৩ ও পশ্চিম বর্ধমানে ১,০০৬টি নমুনায় সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। রাজ্যের অন্যান্য জেলাতেও সংক্রমণ উর্ধ্বমুখি। উত্তরবঙ্গেও মাথাচাড়া দিয়েছে করোনা। রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৭,৩০,৭৫৯।

এদিন রাজ্যে করোনা আক্রান্ত অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। কলকাতায় ৭ জন ও উত্তর ২৪ পরগনায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। হাওড়ায় ৩ জন করোনায় মারা গিয়েছেন। উত্তরবঙ্গে এদিন করোনায় একমাত্র মৃত্যুটি হয়েছে উত্তর দিনাজপুরে।

এদিন রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ৮,১১২ জন। অ্যাক্টিভ কেস বেড়েছে ১০,৬৭১টি। রাজ্যে অ্যাক্টিভ কেস বেড়ে বয়েছে ৬২,০৫৫। রাজ্যে সুস্থতার হার কমে হয়েছে ৯৫.২৭ শতাংশ।

 

বন্ধ করুন