বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নাগেরবাজারে যুবককে ছাদ থেকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ বউদি ও তাঁর মায়ের বিরুদ্ধে
প্রতীকি ছবি।
প্রতীকি ছবি।

নাগেরবাজারে যুবককে ছাদ থেকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ বউদি ও তাঁর মায়ের বিরুদ্ধে

  • সোমবার সকালে শুভমকে ব্যাপক মারধর করে নাকে খদ দিতে দিতে ছাদে নিয়ে যান বউদি ও তাঁর মা। এর পর দীর্ঘক্ষণ তরুণের খোঁজ পাচ্ছিলেন না স্থানীয়রা। বেশ কিছুক্ষণ পর তাঁকে বাড়ির পাশে পড়ে থাকতে দেখা যায়।

দমদমের নাগেরবাজারে এক তরুণের ওপর অকথ্য অত্যাচার চালানোর অভিযোগ উঠল তাঁরই পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে। শুভম চক্রবর্তী নামে ১৮ বছর বয়সী ওই তরুণকে ছাদ থেকে ফেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ঘটনার জেরে এদিন এলাকায় ব্যপক উত্তেজনা ছড়ায়। ঘটনাস্থলে পুলিশকর্মীরা পৌঁছলে তাঁদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা। তরুণের দাদা ও বউদিকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, নাগেরবাজারের নয়াপট্টির বাসিন্দা চক্রবর্তী পরিবারের কর্তা মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বাড়ির ছোট ছেলে শুভমের ওপরে ব্যাপক অত্যাচার চালায় তাঁর বউদি ও তাঁর মা। বাড়ির সব কাজ করানো হয় শুভমকে দিয়েই। কোনও ভুল চুক হলেই শুরু হতো অত্যাচার।

সোমবার সকালে শুভমকে ব্যাপক মারধর করে নাকে খদ দিতে দিতে ছাদে নিয়ে যান বউদি ও তাঁর মা। এর পর দীর্ঘক্ষণ তরুণের খোঁজ পাচ্ছিলেন না স্থানীয়রা। বেশ কিছুক্ষণ পর তাঁকে বাড়ির পাশে পড়ে থাকতে দেখা যায়। স্থানীয়দের সে জানায়, বউদি ও বউদির মা তাঁকে ছাদ থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়েছে।

তরুণকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানোর পর অভিযুক্ত ও বউদি ও তাঁর মাকে ঘিরে শুরু হয় প্রবল বিক্ষোভ। বাড়িটি ঘেরাও করে রাখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন নাগেরবাজার ফাঁড়ির পুলিশকর্মীরা। তাঁদের ঘিরেও বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা। দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভের পর শুভমের দাদা-বউদি ও তাঁর মাকে আটক করে নিয়ে যান পুলিশকর্মীরা।

স্থানীয়দের দাবি, অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। নইলে এলাকায় ফিরলে তাদের ঘেরাও করে ফের বিক্ষোভ দেখাবেন তাঁরা।

 

বন্ধ করুন