বাংলা নিউজ > কর্মখালি > সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার দাবিতে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ
 (ফাইল ছবি)
 (ফাইল ছবি)

সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার দাবিতে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ

  • স্নাতকোত্তরে ভর্তির আবেদনের সময়সীমা শেষ হয়ে যাচ্ছে ১৪ নভেম্বর। সেই মেয়াদ না-বাড়ালে প্রায় দশ হাজার সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার্থী স্নাতকোত্তরে ভর্তি হতে পারবেন না

করোনা র জেরে জনজীবন ব্যাহত। পড়াশুনো, পরীক্ষা সবটাই আগের মতো নিয়ম মাফিক হচ্ছে না। এই কারণেই চাকরিতে যোগ দিতে বা উচ্চশিক্ষার জন্য কোথাও ভর্তি হতে পারছেন না সাপ্লিমেন্টারি পাওয়া পরীক্ষার্থীরা। অবিলম্বে সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা নেওয়া এবং স্নাতকোত্তর স্তরে ভর্তির আবেদনের সময়সীমা বাড়ানোর দাবিতে বুধবার ফের বিক্ষোভ দেখাল পড়ুয়াদের সংগঠন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় স্টুডেন্টস ইউনিটি।

চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে গেলেও অনেক শিক্ষার্থী আগের পরীক্ষায় কোনও বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছেন। সেই বিষয়ে সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা না-দিলে তাঁদের উত্তীর্ণ বলে গণ্য করা হবে না। ফলে তাঁরা চাকরিতে যোগ দিতে বা উচ্চশিক্ষার জন্য কোথাও ভর্তি সুযোগ পাবেন না।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় স্টুডেন্টস ইউনিটির সদস্য অনীক দে জানান, তাঁরা রেজিস্ট্রার দেবাশিস দাসের সঙ্গে দেখা করেছেন। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন, সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা নিয়ে অবিলম্বে ইউজি কাউন্সিলে আলোচনা হবে। ভর্তির আবেদনের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য উচ্চশিক্ষা দফতরের সঙ্গে কথা বলবেন বলেও জানান তিনি। গত শুক্রবার পড়ুয়াদের বিক্ষোভের পরে রেজিস্ট্রার জানিয়েছিলেন, তাঁরা স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষাগুলি দ্রুত নিতে উদ্যোগী হয়েছেন। অনীকের বক্তব্য, রেজিস্ট্রার শুক্রবার জানিয়েছিলেন, এই বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কিন্তু বুধবার পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় কোনও সিদ্ধান্তের কথা জানায়নি। 

এ দিকে ঘোষণা অনুযায়ী স্নাতকোত্তরে ভর্তির আবেদনের সময়সীমা শেষ হয়ে যাচ্ছে ১৪ নভেম্বর। সেই মেয়াদ না-বাড়ালে প্রায় দশ হাজার সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার্থী স্নাতকোত্তরে ভর্তি হতে পারবেন না।রেজিস্ট্রার দেবাশিস দাস বলেন, যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার, ইউজি কাউন্সিলে আলোচনা করেই নেওয়া হবে। ভর্তির সময়সীমা বাড়ানোর বিষয়ে উচ্চশিক্ষা দফতরে সঙ্গে কথা বলতে হবে । পুরো প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত জটিল।

বন্ধ করুন