বাড়ি > কর্মখালি > ত্রিপুরা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি-তে একাধিক স্নাতকোত্তর কোর্সের সুযোগ
TITতে তিনটি বিষয়ে MTech কোর্স চালু করার প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে অল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ টেকনিক্যাল এডুকেশন (AICTE)।
TITতে তিনটি বিষয়ে MTech কোর্স চালু করার প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে অল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ টেকনিক্যাল এডুকেশন (AICTE)।

ত্রিপুরা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি-তে একাধিক স্নাতকোত্তর কোর্সের সুযোগ

  • প্রতিটি কোর্সে আসন সংখ্যা ১৮।

বর্তমান শিক্ষাবর্ষ থেকে ত্রিপুরা ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজিতে (TIT) ভেরি লার্জ স্কেল ইন্টিগ্রেশন (VLSI) এবং এম্বেড সিস্টেম, থার্মাল ইঞ্জনিয়ারিং ও ডেটা সায়েন্সে স্নাতকোত্তর প্রোগ্রাম শুরু করতে চলেছে ত্রিপুরা সরকার। প্রতিটি কোর্সে আসন সংখ্যা ১৮। ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, TITতে তিনটি বিষয়ে MTech কোর্স চালু করার প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে অল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ টেকনিক্যাল এডুকেশন (AICTE)।

TIT ত্রিপুরার একমাত্র রাজ্য সরকার পরিচালিত ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ। এই রাজ্যেও একটি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি, একটি ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ইনফরমেশন টেকনোলজি (IIT) এবং একটি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ রয়েছে,। এ ছাড়া ডিপ্লোমা পড়াশোনার জন্য ছয়টি সরকারি পলিটেকনিক কলেজ (ITI) আছে। ।

বর্তমানে TITর ইলেকট্রনিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি কোর্সে মোট ১,১০০ শিক্ষার্থী আছেন । আরও ২,৭১২ জন শিক্ষার্থী আইটিআই-তে ডিপ্লোমা কোর্সে পড়াশোনা করছেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন , উন্নত মানের শিক্ষা প্রদানের লক্ষ্যে তার সরকার ২০১৮ সালের মার্চে একটি শিক্ষানীতি তৈরি করে। AICTE র অনুমোদনের অভাবে TITতে কয়েকটি কোর্স করানো হয়। ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং গত বছর ন্যাশনাল বোর্ড অফ অ্যাক্রিডেশন (NBA) এর অনুমোদন পেয়েছে।

আগে পড়ুয়াদের স্নাতকোত্তর স্তরে পড়াশুনোর জন্য ভিন রাজ্যে যেতে হত। এবার অন্তত ৫৪জন পড়ুয়া উপকৃত হবেন। তাদের অন্য রাজ্যে যেতে হবে না।

বন্ধ করুন