বাড়ি > কর্মখালি > বাকি পড়েছে কলেজের ফি, পরীক্ষা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তায় ত্রিপুরার BEd পড়ুয়ারা
বকেয়া টাকা না পেলে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের বসতে দেওয়া হবে না, জানিয়েছে বিএড কলেজগুলি।
বকেয়া টাকা না পেলে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের বসতে দেওয়া হবে না, জানিয়েছে বিএড কলেজগুলি।

বাকি পড়েছে কলেজের ফি, পরীক্ষা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তায় ত্রিপুরার BEd পড়ুয়ারা

  • প্রথম বছর পড়ুয়াদের সমস্ত খরচ বহন করে ত্রিপুরা উপজাতি কল্যাণ দফতর। কিন্তু শেষ বছরের টাকা এখনও মেটানো হয়নি।

ত্রিপুরা উপজাতি কল্যাণ দফতর স্পনসর্ড বিএড কোর্সের বকেয়া টাকা না মেটানোয় বিপাকে চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীরা। টাকা না পেলে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের বসতে দেওয়া হবে না। জানিয়েছে বিএড কলেজগুলি।

২০১৮-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ছাত্রছাত্রীদের বিএড পড়া স্পনসর করে ত্রিপুরা উপজাতি কল্যাণ দফতর। সেই মতো পড়ুয়াদের পঠনপাঠন শুরু হয়। অভিযোগ, প্রথম বছর তাঁদের সমস্ত খরচ বহন করে দফতর। কিন্তু শেষ বছরের টাকা এখনও মেটায়নি। এ ক্ষেত্রে বিএড কলেজগুলি পড়ুয়াদের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে। 

কলেজের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, টাকা না দিলে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হবে না। অক্টোবর মাসেই পরীক্ষা। পরীক্ষার রুটিন ও প্রকাশিত হয়েছে। 

এই অবস্থায় দিশেহারা ছাত্রছাত্রীরা। বিষয়টি নিয়ে ৫ বার উপজাতি কল্যাণ দফতরের অধিকর্তার সঙ্গে দেখা করেছেন উদ্বিগ্ন ছাত্রছাত্রীরা। কিন্তু কোনও লাভ হয়নি।

প্রায় ২০০জন স্পন্সরড বিএড ছাত্রছাত্রী আছেন। শুক্রবার গুর্খা বস্তির উপজাতি কল্যাণ দফতরে ফের একবার তাঁরা যান। তাঁদের দাবি উপজাতি কল্যাণ দফতর যেন তাঁদের অকল্যাণ না করে। দফতর শীঘ্র বিষয়টির মীমাংসা না করলে অনশন ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ছাত্রছাত্রীরা।

বন্ধ করুন