বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Sushant Singh Rajput-Ankita Lokhande: সুশান্তকে ট্রিবিউট ডিআইডি-র, দেখে কেঁদে ফেলল অঙ্কিতা! ট্রোলাররা বলল, ‘নাটক যত’
সুশান্তের কথায় এখনও চোখে জল আসে অঙ্কিতার। 

Sushant Singh Rajput-Ankita Lokhande: সুশান্তকে ট্রিবিউট ডিআইডি-র, দেখে কেঁদে ফেলল অঙ্কিতা! ট্রোলাররা বলল, ‘নাটক যত’

  • ডিআইডি সুপার মম-এর মঞ্চে হাজির ছিলেন অঙ্কিতা। আর সেখানেই সুশান্তকে দেওয়া ট্রিবিউট দেখে নিজেকে সামলাতে পারলেন না তিনি। কেঁদে ভাসালেন। 

ডিআইডি সুপার মমস-এর আসছে এপিসোড হতে চলেছে পবিত্র রিস্তা স্পেশ্যাল। যেখানে ‘সম্পর্ক’ই হবে নাচের থিম। আর ওদিন বিশেষ অতিথি হিসেবে হাজির থাকবেন অঙ্কিতা লোখাণ্ডে আর উষা নদকারনি। সম্প্রতি চ্যানেলের তরফ থেকে একটা নতুন প্রোমো শেয়ার করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে দুই প্রতিযোগীর তরফে ট্রিবিউট দেওয়া হয় সুশান্ত সিং রাজপুতকে, যিনি আইকনিক ধারাবাহিক ‘পবিত্র রিস্তা’তে মানবের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। আর তা দেখেই ফের একবার কেঁদে ফেলেন অঙ্কিতা।

২০০৯ সালে শুরু হয়েছিল পবিত্র রিস্তা। যেখানে মানব আর অর্চনার প্রেম মন কাড়ত দর্শকের। কীভাবে যে সুশান্ত এত প্রিয় হয়ে ওঠেন দর্শকের, তা মনে হয় তিনি নিজেও বোঝেননি। সেই সময় একে-অপরকে মন দেন তাঁরা। সকলের সামনে ঝলক দিখলা যা-তে সুশান্ত প্রেম জাহির করেন অঙ্কিতাকে। একসঙ্গেই থাকতেন। বলিউডের মোস্ট টকড কাপল ছিলেন তাঁরা। তবে ২০১৬ সালে পথ আলাদা হয় দুজনের।

প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে সুশান্তকে দেওয়া ট্রিবিউট দেখে চোখের জল আর ধরে রাখতে পারেননি অঙ্কিতা। সজল চোখে বলে ওঠেন, ‘ও খুব ভালো বন্ধু ছিল… সব কিছু ছিল। ও যেখানেই আছে খুব ভালো আছে আমি নিশ্চিত। ভগবান ওর ভালো করুক।’ দেখা যায় উষা (যিনি অনস্ক্রিন সুশান্তের মা হয়েছিলেন)-ও নিজের চোখ মুছছেন।

এই ভিডিয়ো নিমেষে ভাইরাল। তবে অঙ্কিতাকে চোখের জল ফেলতে দেখে অনেকেই উলটো কথা বলেছেন। এক ভক্ত লিখলেন, ‘আমরা তোমায় ভালোবাসি সুশান্ত। এখনও মিস করি।’ অপরজন লিখলেন, ‘এটা সত্যিই কাঁদিয়ে দিল’। যদিও অনেকেই মনে করছেন টিআরপি বাড়ানোর ধান্ধায় এমন কাজ করেছে চ্যানেল। মারা যাওয়ার পরেও সুশান্তের নাম ব্যবহার করা হচ্ছে। তাই তো এক ভক্ত লিখলেন, ‘যদি সত্যি সুশান্তের প্রতি এত ভালোবাসা থাকে তবে ওকে ন্যায় দেওয়ানোর ব্যবস্থা করুন। এসব করে কী হবে!’

কেউ আবার সরাসরি কটাক্ষ করলেন অঙ্কিতাকে। লিখলেন, ‘সেই যবে থেকে ছেলেটা মরে গেছে অঙ্কিতা নাটক করে চলেছে। বিয়ে করল, সারাদিন বরকে চিপকে ঘুরে বেরায়। আর সুযোগ পেলেই সুশান্তের নাম নিয়ে একটু কেঁদে সমবেদনা পেতে চায়। এমনিতে তো ওকে কেউ ডাকে না আজকাল।’

 

 

বন্ধ করুন