বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Bipasha Basu : ছোট্ট দেবীর সঙ্গে খেলছেন 'মা' বিপাশা, ‘নজর না লাগে’, বলছে নেটপাড়া!

Bipasha Basu : ছোট্ট দেবীর সঙ্গে খেলছেন 'মা' বিপাশা, ‘নজর না লাগে’, বলছে নেটপাড়া!

দেবীর সঙ্গে বিপাশা

এ যেন মাতৃত্বের এক অদ্ভুত অনুভূতি। মেয়ের স্পর্শ পেয়ে আবেগে চোখ বুজেছেন না বিপাশা, তাঁর ঠোঁটের কোণে লেগে রয়েছে হাসি। এ এক অদ্ভুত অনুভূতি, তৃপ্তি। বিপাশার কথায়, ‘আমার জীবনে সবথেকে সুন্দর চরিত্র হল আমি দেবীর মা। দুর্গা দুর্গা।’

একরত্তি দেবীকে নিয়েই এখন সময় কাটছে মা বিপাশার। মা হওয়ার পর গোটা জীবনটাই যেন বদলে গিয়েছে বিপাশার। মাতৃত্বের স্বাদ চেটেপুটে উপভোগ করছেন অভিনেত্রী। গত অগস্ট মাসেই অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবরে শিলমোহর দিয়েছিলেন ৪৩ বছর বয়সী অভিনেত্রী। আর নভেম্বরেই করণ-বিপাশার ঘরে আসে লক্ষ্মী। আপাতত সময় কাটছে সেই ছোট্ট লক্ষ্মী 'দেবী'কে নিয়েই। সম্প্রতি মেয়েকে নিয়ে ফটোশ্যুট করে ফেললেন বিপাশা।

ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা ছবিতে ছোট্ট দেবীর ছোট্ট পা ধরে নিজের গালে ঠেকাতে দেখা যাচ্ছে বিপাশা বসুকে। বিপাশাকে সাদা টপ পরে থাকতে আর দেবীকে আকাশি রঙের প্রিন্টেড টি-শার্টে দেখা যাচ্ছে। এ যেন মাতৃত্বের এক অদ্ভুত অনুভূতি। মেয়ের স্পর্শ পেয়ে আবেগে চোখ বুজেছেন না বিপাশা, তাঁর ঠোঁটের কোণে লেগে রয়েছে হাসি। এ এক অদ্ভুত অনুভূতি, তৃপ্তি। বিপাশার কথায়, ‘আমার জীবনে সবথেকে সুন্দর চরিত্র হল আমি দেবীর মা। দুর্গা দুর্গা।’ ছোট্ট দেবীর সুন্দর এই মুহূর্ত লেন্সবন্দি করার জন্য চিত্রগ্রাহককে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বিপাশা। নিজের পোস্টে জ্যাক জনসনের বেটার টুগেদার গানটি জুড়ে দিয়েছেন বিপাশা। হ্যাশট্যাগ হিসাবে ব্যবহার করেছেন 'মাতৃত্ব', 'আশীর্বাদপ্রাপ্ত', 'কৃতজ্ঞ', 'বানরের প্রেম' এবং 'জীবনের স্মৃতি'।

মা-মেয়ের ছবির নিজে এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘এটা একটা আলাদা ধরনের সুখ। আলাদা সুখুন হ্যায় লাইফ কা (এটি জীবনের সবচেয়ে বড় আনন্দ) ঈশ্বর দেবীর মঙ্গল করুন’। কেউ বলেছেন, ‘এটা একটা সুন্দর ছবি!! থু থু থু (দুষ্ট নজর তাড়িয়ে দি)। কারোর মন্তব্য'আমার হৃদয় খুব পূর্ণ।' কারোর কথায়, ‘এত্ত সুন্দর মা এবং শিশু।’ কারোর কথায়, ‘মায়ের ভালোবাসা খুবই মূল্যবান’।

গত নভেম্বরে ১২ তারিখ মুম্বইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে মেয়ের জন্ম দেন ‘জিসম’ তারকা। মেয়ের নাম রেখেছেন দেবী বসু সিং গ্রোভার। মেয়ের প্রথম ঝলক শেয়ার করে একটু মজা করেই ইনস্টাগ্রামে দেবী তৈরির ‘রেসিপি’ ভাগ করে নেন বিপাশা। লিখেছিলেন, কী প্রণালীতে তৈরি হয়েছে তাঁদের দেবী! সঙ্গে ট্যাগ করেছেন করণকেও। ৬টি ভাগে ভেঙে মেয়ের জন্মের কথা বলেন বিপাশা। লেখেন, ‘দেবদূতের মতো মিষ্টি শিশুর তৈরির জন্য আমাদের রেসিপি- ১) কাপের এক চতুর্থাংশ তুমি। ২) এক চতুর্থাংশ আমি। ৩) বাকি অর্ধেক কাপ মায়ের ভালোবাসা এবং আশীর্বাদ। ৪) ম্যাজিক এবং যা কিছু ভালো সব টপিংসে (উপরে) যাবে। ৫) ৩ ফোঁটা রামধনুর নির্যাস, পিক্সি ডাস্ট, ইউনিকর্ন এবং যা কিছু স্বর্গীয়, ছড়িয়ে দিতে হবে। ৬) সিজনিংয়ে স্বাদ মতো সমস্ত মিষ্টি এবং আরও সব ভালো ভালো জিনিস ছড়িয়ে নিতে হবে।’ 

বন্ধ করুন