বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > প্রাক্তন প্রেমিকা বিপাশার সঙ্গে বর্তমানেও সুসম্পর্ক, অকপট দিনো মরিয়া
দিনো মরিয়া
দিনো মরিয়া

প্রাক্তন প্রেমিকা বিপাশার সঙ্গে বর্তমানেও সুসম্পর্ক, অকপট দিনো মরিয়া

  • প্রাক্তন প্রেমিকা বিপাশা সম্পর্কে বলতে গিয়ে দিনো বলেন, এখনও তাঁদের সম্পর্কের সমীকরণ বদলায়নি। রাজ থেকে গুনাহ পর্যন্ত তাঁদের সম্পর্ক একই রকমের রয়েছেন। ব্যক্তিগত জীবনের প্রভাব পেশাদারিত্বে পড়তে দেননি তাঁরা।

কেরিয়ারের শুরুর দিকে অভিনেত্রী বিপাশা বসুকে ডেট করতেন অভিনেতা দিনো মরিয়া। সম্প্রতি হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, বিপাশা এবং তাঁর সমীকরণ কখনই বদলাবে না। হিন্দুস্তান টাইমসের সাথে একটি নতুন সাক্ষাৎকারে, দিনো তাঁর প্রাক্তন বান্ধবী বিপাশা, তাঁর সাম্প্রতিক শো ‘দ্য এম্পায়ার’ এবং সম্প্রতি ডিজনি+ হটস্টার -এ প্রিমিয়ার হওয়া ঐতিহাসিক ওয়েব সিরিজ নিয়ে মুখ খুলেছেন।

বিপাশা বসুর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর তাঁদের সমীকরণ বদলেছে কিনা জানতে চাইলে; দিনো মরিয়া বলেন, ‘রাজ থেকে গুনাহ পর্যন্ত বিপাশা বসুর সঙ্গে আমার সমীকরণ বদলায়নি। আমি মনে করি না এটি কখনও বদলাবে। হ্যাঁ, যখন আমরা রাজের শ্যুটিং করছিলাম তখন আমরা ডেটিং করছিলাম। তারপর গুনাহ করার সময় আমাদের মধ্যে কোনও সম্পর্ক ছিল না। আমি মনে করি আমরা দুজনেই পেশাদার অভিনেতা ছিলাম এবং আমরা দুজনেই সেটে এবং ইন্ডাস্ট্রিতে পেশাদার হতে চেয়েছিলাম। সুতরাং, আমরা আমাদের কাজের মধ্যে আমাদের ব্যক্তিগত সম্পর্ক আসতে দিইনি। কাজের থেকে সবকিছু দূরে রাখতে চেয়েছিলাম’। দুটো ছবিই ২০০২ সালে মুক্তি পেয়েছিল।

দিনো আরও বলেছিলেন, 'তাঁর সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব এখনও আছে ... মানে আমরা দুজনেই একে অপরকে সম্মান করি এবং আমরা দুজনেই এখনও বন্ধুত্বপূর্ণ, খুব বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখেছি। আসলে আমরা বেশি কথা বলি না, কিন্তু আমরা মাঝে মাঝে কথা বলি এবং সেখানে আমাদের সেই দুর্দান্ত স্মৃতি রয়ে যায়। সুতরাং, সমীকরণ দুর্দান্ত!'

নিখিল আডভানি পরিচালিত দ্য এম্পায়ার ছবিতে শায়বানী খান (Shaybani Khan) হিসেবে দিনোর চরিত্র এবং অভিনয় ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে। যদিও একাশং মুঘলদের বাড়িয়ে-চড়িয়ে দেখানোর অভিযোগে ওয়েব সিরিজের উপর নিষেধাজ্ঞার দাবি করেছিলেন। এর উত্তরে অভিনেতা বলেন, ‘আমি এই শোতে অংশ নিয়েছি এবং আমি যে (শায়বানী খান) চরিত্রটি করেছি, একবারও ভাবিনি এর জন্য কোন নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া হবে। প্রথমত, এটি (ওয়েব সিরিজ) একটি বইয়ের উপর ভিত্তি করে। দ্বিতীয়ত, অনেক কথাসাহিত্য আছে। আমরা বলছি না এটা কারো বায়োপিক। আমরা শুধু একটি ছবি তৈরি করেছি, আমরা ৬০০ বছরের পুরনো একটি কাহিনি তৈরি করেছি। এবং একটি গল্প যা অন্য দেশ ফারগানায় (Fergana) ঘটেছিল, যা এখন উজবেকিস্তান (Uzbekistan) নামে পরিচিত’।

দ্য এম্পায়ার ছবি থেকে দিনো মরিয়া
দ্য এম্পায়ার ছবি থেকে দিনো মরিয়া

তিনি আরও বলেন, ‘মুক্তির পরে যাদের সমস্যা হয়েছিল তারা আসলে যারা শোটি দেখেননি। যারা শো পছন্দ করেছেন তাঁদের সংখ্যা তাদের তুলনামূলক অনেক বেশি যাঁদের সমস্যা আছে তাঁদের তুলনায়। আমরা কাউকে আঘাত করছি না বা কাউকে গৌরবান্বিত করছি না, যেভাবে লোকেরা বলছে। আপনি যদি শোটি দেখেন, আপনি বুঝতে পারবেন আমি কী বলতে চাইছি। সুতরাং, এই সব আমাকে প্রভাবিত করেনি, এটি এখনও করে না। অসাধারণ সুন্দর করে তুলে ধরা হয়েছে, সকলের দেখলে অবশ্যই ভাল লাগবে। আমি কোন কিছু নিয়ে চিন্তিত হওয়ার তুলনায় বেশি উত্তেজিত’।

দিনো আরও বলেন, ‘হ্যাঁ, আমরা এমন এক যুগে বাস করি যেখানে প্রত্যেকেরই হাতে ফোন আছে এবং যাদের ফোন আছে তাদের প্রত্যেকেরই মতামত রয়েছে। সেখানে ট্রোলিংও আছে। আমি এর পুনরাবৃত্তি করতে চাই। ট্রোলাররা আপনার বিল পরিশোধ করে না। আপনি তাদের মতামতের উপর নিজের জীবনকে ভিত্তি করতে পারবেন না। আপনি আপনার জীবনের ভিত্তি এবং আপনি আপনার শর্তাবলী উপর আপনার জীবন যাপন। আপনার মতামত গুরুত্বপূর্ণ এবং আপনার নিকটতম ব্যক্তিদের মতামত গুরুত্বপূর্ণ। অন্য কারও মতামত গুরুত্বপূর্ণ নয়’।

 

বন্ধ করুন