বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Dipankar De: এখনও কীভাবে নিজেকে খুশি রাখেন আটাত্তরের দীপঙ্কর? উত্তর হল ‘আলুর চপ আর বেগুনি’
দু'বছর আগে বিয়ে করেন দীপঙ্কর-দোলন।

Dipankar De: এখনও কীভাবে নিজেকে খুশি রাখেন আটাত্তরের দীপঙ্কর? উত্তর হল ‘আলুর চপ আর বেগুনি’

সম্প্রতি দিদি নম্বর ওয়ানের মঞ্চে অতিথি হয়ে আসেন সস্ত্রীক দীপঙ্কর। সেখানেই তাঁর সঙ্গে গল্পে মজেছিলেন অনুষ্ঠানের সঞ্চালিকা রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বয়স শুধু সংখ্যা মাত্র। মেজাজই আসল রাজা। এ কথা আরও একবার প্রমাণ করে দিলেন অভিনেতা দীপঙ্কর দে। জানিয়ে দিলেন কী ভাবে সারা দিন নিজেকে চনমনে রাখেন তিনি।

সম্প্রতি দিদি নম্বর ওয়ানের মঞ্চে অতিথি হয়ে আসেন সস্ত্রীক দীপঙ্কর। সেখানেই তাঁর সঙ্গে গল্পে মজেছিলেন অনুষ্ঠানের সঞ্চালিকা রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানতে চান, সারাটা দিন কী ভাবে কাটে বর্ষীয়ান অভিনেতার?

ভোজনরসিক অভিনেতা জানান, মনপছন্দ সব তেলেভাজাকে সঙ্গী করেই দিন কাটে তাঁর। ডায়েটের 'ড'টুকুও মানেন না তিনি। দীপঙ্কর বললেন, 'পেটপুজো, পুরোটাই পেটপুজো। আলুর চপ, বেগুনি— এগুলো আমি খাবই।' এমন উত্তর বোধ হয় মোটেই আশা করেননি রচনা। চমকে গিয়ে জিজ্ঞাসা করলেন, 'এখনও?' হাসতে হাসতে দীপঙ্করের উত্তর, 'হ্যাঁ হ্যাঁ, না হলে বাঁচব কী করে!'

রবিবার দিদি নম্বর ওয়ানে রচনার অতিথি হিসেবে দেখা গিয়েছে টলিউডের চার তারকা-দম্পতিকে। নিজেদের জীবনের নানা গল্প সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন তাঁরা। সেখানেই আরও একবার দর্শকের মন ছুঁয়েছে দীপঙ্কর-দোলনের রসায়ন।

(আরও পড়ুন: নিজের হাতে রান্না আর প্রেমেমাখা কবিতা দীপঙ্করের জন্মদিনে উপহার স্ত্রী দোলনের)

দীর্ঘ দিন সম্পর্কে থাকার পর ২০২০ সালে বিয়ে করেন দীপঙ্কর-দোলন। দক্ষিণ কলকাতার এক হোটেলে বসেছিল বিয়ের আসর। ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবদের উপস্থিতিতে রেজিস্ট্রি করেছিলেন তাঁরা। বিশেষ দিনে সাদা পাঞ্জাবিতে সেজে উঠেছিলেন দীপঙ্কর। দোলন বেছে নিয়েছিলেন টুকটুকে লাল বেনারসি। খাতায় কলমে বিয়ের পর হয়েছিল মালাবদলও। ভালোবাসার কাছে যে বয়স তুচ্ছ, তা আরও একবার প্রমাণ করেছিলেন তাঁরা।

বন্ধ করুন