বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > যশের কাছে ভুল বার্তা গিয়েছে, ওঁর রাগ হওয়াই স্বাভাবিক: শিলাদিত্য
যশের বিবৃতি প্রসঙ্গে কী বলছেন শিলাদিত্য?

যশের কাছে ভুল বার্তা গিয়েছে, ওঁর রাগ হওয়াই স্বাভাবিক: শিলাদিত্য

  • পরিচালক জানিয়েছেন, যশের সঙ্গে তাঁর কখনোই কোনও সমস্যা ছিল না। তাই অভিনেতার বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করার প্রসঙ্গ ওঠে না।

শৈল্পিক মতবিরোধের কারণে 'চিনেবাদাম' ছবি থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন যশ দাশগুপ্ত। এ বার নাম না করেই ছবির নির্মাতাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করার কথা জানিয়ে দিলেন অভিনেতা । একটি বিবৃতি জারি করে যশ বলেন, 'যে সব মন্তব্য করা হয়েছে, তা সর্বৈবভাবে মিথ্যা ও ভুয়ো। আমরা এর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেব, গোটা বিষয় নিয়ে আমরা আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করেছি। খুব শীঘ্রই এই ব্য়াপারে বিস্তারিত জানানো হবে।'

ছবি থেকে যশের সরে দাঁড়ানোর আসল কারণ অনুসন্ধান করতে গিয়েই যাবতীয় বিতণ্ডার সূত্রপাত। নানা জল্পনারও অবতারণা হয়েছিল। বিবৃতির সঙ্গেই নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলির একটি তালিকা প্রকাশ করেছেন যশ। সেখানে নির্দিষ্ট চারটি মন্তব্য তুলে ধরা হয়েছে।

১. ‘ছবিতে আর ঝাঁ চকচকে লোক নিইনি বলে যশের প্রথম থেকেই একটা আপত্তি ছিল।’

২. ‘২০২২ সালে এসে পিছন দিয়ে ধোঁয়া উড়বে, শ্যাম্পু করা চুল উড়বে, এমন ছবি বানানো আমার স্টাইল নয়, সেটা ও জানতই।’

৩. ‘কালো ছেলেকে কেন আমি সিনে নাচ করাব, এ সব নিয়ে যদি কারও প্রশ্ন থেকে থাকে, তা হলে তো আমার কিছু বলার নেই।’

৪. ‘ছবির সঙ্গে কোনও আত্মিক বন্ধন নেই।’

নাম না করলেও বোঝা যায় যশের অভিযোগের তির শিলাদিত্য মৌলিকের দিকে।

যাঁকে নিয়ে এতো অভিযোগ তিনি কী বলছেন?

'চিনেবাদাম' ছবির পরিচালক বললেন, 'যশের বিরুদ্ধে আমার কোনও ক্ষোভ নেই। আমার কথাগুলোকে ওঁর কাছে ভুল ভাবে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। রং চড়িয়ে বলা হয়েছে। তাতে ওঁর রাগ হওয়াটাই স্বাভাবিক। তাই উনি আইনি পদক্ষেপ করার পরিকল্পনা করছেন।'

তা হলে কি যশ প্রদত্ত তালিকায় উল্লেখিত একটি কথাও বলেননি শিলাদিত্য?

পরিচালক জানিয়েছেন, যশের সঙ্গে তাঁর কখনোই কোনও সমস্যা ছিল না। তাই অভিনেতার বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করার প্রসঙ্গ ওঠে না। যশের 'বর্ণবিদ্বেষ' বিতর্ক নিয়ে তিনি বলেন, 'যশ একদিন শ্যুটে আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, 'যে কালো ছেলেটি নাচ করছে, সে কে?' ওর এই প্রশ্নের মধ্যে আমি কোনও বর্ণবিদ্বেষ খুঁজে পাইনি। ওর বিরুদ্ধেও কোনও কথা বলতে চাইনি।'

শিলাদিত্য জানান, ছবিতে গানের সংখ্যা নিয়ে যশের সঙ্গে মতবিরোধ ছিল তাঁর। কিন্তু প্রযোজকের কথা মতোই কাজ করতে হয়েছে পরিচালককে। 'যশ জানতে চেয়েছিলেন চারটে গানের আদৌ প্রয়োজন আছে কি না। কিন্তু ছবিতে অ্য়াপের বিষয়টি বোঝানোর জন্য চার নম্বর গানটি চেয়েছিলেন প্রযোজক। তাই সেটি রাখা হয়েছিল। এর পরেই যশ ছবি থেকে সরে দাঁড়ান।'

পরিচালক মনে করছেন, শৈল্পিক মতবিরোধ হওয়ার থাকলে ছবির শ্যুট চলাকালীনই হত। তাঁর বক্তব্য, 'আমি শুধু বলেছিলাম যে যশ জানতেন আমি অন্য ধরনের ছবি বানাই। সেখানে যে শ্যাম্পু করা চুল উড়বে না বা ধোঁয়ার ব্যবহার থাকবে না, তা তাঁর জানা ছিল। আমি কখনও বলিনি যে, উনি এ সব করার দাবি করেছেন। আমার কথাকে বিকৃত করে ওঁর কাছে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আমার ছবি।'

বন্ধ করুন