বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > হাসতে কেন সমস্যা হতো! আজব সমস্যার কথা জানালেন হৃত্বিক নিজেই
যে হাসিতে ফিদা লক্ষ নারী হৃদয়  (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
যে হাসিতে ফিদা লক্ষ নারী হৃদয়  (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)

হাসতে কেন সমস্যা হতো! আজব সমস্যার কথা জানালেন হৃত্বিক নিজেই

  • বলিউডের 'গ্রীক গড' বলা হয় হৃত্বিক রোশনকে। বিশ্বের অন্যতম হ্যান্ডসাম পুরুষদের তালিকায় তাঁর নাম ওপরের দিকেই। 

বড়োপর্দায় তাঁর অভিনয় থেকে শুরু করে নাচে মুগ্ধ আসমুদ্রহিমাচল ভারত। টানা একুশ বছর ধরে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পত্রিকার সমীক্ষার বিচারে তিনি বিশ্বের সেরা হ্যান্ডসাম পুরুষদের মধ্যে অন্যতম।তাঁর ছবির শ্যুটিংয়ের খবর পেয়ে সেটে হাজির হয়েছিলেন মাইকেল জ্যাকসন স্বয়ং। চল্লিশ পেরিয়েও তাঁর জনপ্রিয়তা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেবে বলিপাড়ার নয়া প্রজন্মের তারকাদের। কথা হচ্ছে হৃত্বিক রোশনকে নিয়ে। লম্বা পেটানো চেহারা, ধূসর রঙের চোখের সঙ্গে মানানসই দুর্দান্ত হাসি এই অভিনেতাকে তকমা পাইয়েছে 'বলিউডের গ্রীক গড '-এর। তবে জানেন কি একসময় ক্যামেরার সামনে ঠিক করে হাসতে পর্যন্ত পারতেন না তিনি? অন স্ক্রিন হাসতে রীতিমতো মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হতো তাঁকে। সম্প্রতি, এই কথা জানিয়েছেন হৃত্বিক নিজেই!  

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের হাসিমুখের ছবি পোস্ট করে হৃত্বিক জানান যে কেরিয়ারের শুরুতে ক্যামেরার সামনে হাসা তাঁর কাছে একপ্রকার বিভীষিকাই ছিল। কিছুতেই ক্যামেরার সামনে 'ফ্রি' বা সহজ হতে পারতেন না। ক্যামেরার মুখোমুখি হলে এতটাই টেনশনে ভুগতেন তিনি। ‘ গ্রীক গড’-এর এহেন দারুণ হাসিমুখের ছবির পাশাপাশি এই সাহসী স্বীকারোক্তিতে এই মুহূর্তেই মজেছেন নেটিজেনরা। 

ছবির কমেন্ট বক্সে ' সুপার থার্টি ' ছবিতে হৃত্বিকের সহ-অভিনেত্রী ম্রুনাল ঠাকুর ও সেলেব্রিটি হেয়ার স্টাইলিস্ট আলিম হাকিমের কমেন্ট নজর কেড়েছে হৃত্বিক-অনুরাগীদের। প্রসঙ্গত, চলতি বছরে দীপিকা পাড়ুকোনের সঙ্গে জুটি বেঁধে ওয়ার পরিচালক সিদ্ধার্থ আনন্দের 'ফাইটার' ছবির মাধ্যমে দর্শকদের সামনে ফের একবার হাজির হতে চলেছেন হৃত্বিক।

বন্ধ করুন