বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > যে ধরণের চরিত্রে অভিনয় করতে চেয়েছিলাম, ৪০ বছর বয়সে এসে করতে পারছি: লারা দত্ত
লারা দত্ত
লারা দত্ত

যে ধরণের চরিত্রে অভিনয় করতে চেয়েছিলাম, ৪০ বছর বয়সে এসে করতে পারছি: লারা দত্ত

  • লারার কথায়, তাঁর ৩০ বছর বয়সে মেয়ের জন্মের পর মাতৃত্বকালীন লম্বা বিরতিটা একটা আশীর্বাদের মতো ছিল তাঁর কাছে।

প্রায় ১৯ বছর ধরে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নিজের কেরিয়ার জীবন নিয়ে বেশ কিছু মন্তব্য করেছেন অভিনেত্রী লারা দত্ত। এতদিন ধরে যে ধরণের চরিত্রে কাজ করতে চাইছিলেন, এখন তেমনই কাজ করতে পারছেন তিনি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তেমনই ফাঁস করেছেন লারা। 

২০০৩ সালে ‘আন্দাজ’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে ডেবিউ করেন লারা। এরপর 'মাস্তি', ‘নো এন্ট্রি’, ‘ভাগামভাগ’, ‘পার্টনার’, ‘হাউসফুল’ সহ একাধিক বলিউডের হিট ছবিতে অভিনয় করেছেন। 

গালফ নিউজকে দেওয়া সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে লারা জানিয়েছেন, ‘সত্যি বলতে, বয়স আমাকে স্বাধীনতা দিয়েছে। এই ৪০ বছর বয়সে এসে আমি যেই চরিত্রগুলিতে অভিনয় করতে চেয়েছিলাম, সেগুলিতে করতে পারছি। আমি ইন্ডাস্ট্রিতে আসার আগে কখনই নায়িকা অথবা সেরা হওয়ার কথা ভাবিনি। শুধুমাত্র অভিনয় করব সেইটাই ভেবেছি। আমি শুধুমাত্র অভিনেত্রী হতে চেয়েছিলাম। শেষ পর্যন্ত আমি এই ধরণের চরিত্র পাচ্ছি। আমার মনে হয়, ৩৫ থেকে ৫৫ বছরের মহিলারা তেমনভাবে সমর্থন পায় না। তাঁদের উপর কিছুই তৈরি করা হয়নি’। 

অতীতে সিনেমা এবং ধারাবাহিকে মেয়েদের চরিত্রে কথা মনে স্মরণ করে লারা বলেন, ‘হয়তো তোমাকে দীর্ঘ সময় ধরে নিজেকে আত্মত্যাগ করা মা হিসেবে দেখা যাবে, নয়তো তুমি সতী-সাবিত্রীর বেশে, এমনটাই ছিল! আমাকে ক্ষমা করবেন এই রকম শব্দের জন্য, কিন্তু সত্যি বলতে এই ধরণের চরিত্র পেয়ে আমি ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। যখন ৩০ বছরে পা রাখি, তখন মেয়ের জন্ম হয়। কিছু সময় বিরতি নিয়েছিলাম কাজ থেকে। আমার কাছে ও আশীর্বাদের মতো’।

মহিলাদের জন্য বর্তমান ভূমিকা সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে, লারা আরও বলেছিলেন যে এক দশক আগে 'আমার পূর্বসূরির জন্য এই ধরনের ভূমিকা করার সুযোগ ছিল না' এবং তিনি 'অনেকটাই ভাগ্যবান' মনে করেন নিজেকে। 

লারা দত্তের কেরিয়ারের তিন নম্বর ওটিটি সিরিজ হতে চলেছে 'কৌন বনেগা শিখরবতী'। নাসিরুদ্দিন শাহ, রঘুবীর যাদব, সোহা আলি খান, অন্যা সিং সহ আরও অনেককে এই ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যাবে। 

 

 

বন্ধ করুন