বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > চাই নির্মাদ পেট, খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলেন নিয়া শর্মা, ‘খিদে নিয়েই জিমে যেতাম’!
নিজেকে ‘না খাইয়ে’ রাখার কথা বললেন নিয়া শর্মা।
নিজেকে ‘না খাইয়ে’ রাখার কথা বললেন নিয়া শর্মা।

চাই নির্মাদ পেট, খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলেন নিয়া শর্মা, ‘খিদে নিয়েই জিমে যেতাম’!

  • ‘ফুক লে’ মিউজিক ভিডিয়োতে কাঙ্ক্ষিত লুক পেতে আর যা যা করেছিলেন নিয়া!

টেলি-অভিনেত্রীদের মধ্যে নিয়া শর্মা নামটা সকলের সাথেই পরিচিত। ধারাবাহিকে কাজ করার পাশাপাশি নিজের আলাদা পরিচয় তৈরি করেছেন নিয়া। তবে ভাববেন না নিয়ার চাবুক ফিগার এত সহজে এসেছে। বরং, একসময় এই নির্মেদ শরীরের জন্য খাওয়া-দাওয়াও বন্ধ করেছিলেন তিনি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে গোটা ব্যাপারটা খোলসা করলেন নিয়া। 

এক সাক্ষাৎকারে নিয়ে জানালেন, তাঁর শরীরে প্রবণতা আছে ব্লোটিংয়ের। আর এটা মেনে নিতেই নিয়ার অনেকটা সময় লেগে গিয়েছিল যে বছরের ৩৬৫ দিন নির্মেদ পেট পাওয়া তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়। আর শরীরের এই সমস্যার কারণে তিনি ভেঙেও পড়েছিলেন একসময়। 

আরজে সিদ্ধার্থ কান্নানকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিয়ে জানান, ‘আমি খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলাম। আর খাওয়া বন্ধ করেছি মানে ভাববে না কোনও ডায়েট। আমি পেটে খিদে নিয়ে ঘুমোতে যেতাম, খিদে নিয়ে ঘুম থেকে উঠতাম এমনকী ওভাবেই জিমে যেতাম। আসলে একটা সময় পর আমার খিদে পাওয়াই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। কারণ আমার খিদের অনুভবটাই চলে গিয়েছিল।’

প্রসঙ্গত, নিজের মিউজিক ভিডিয়ো ‘ফুক লে’র প্রসঙ্গে একথা জানান নিয়া। অভিনেত্রী জানান, ‘‘গানে নিজেকে সুন্দর দেখাতে আমি এতটাই বিভোর হয়ে পড়ছিলাম। আমি তারপর নিজের পেটের দিকে তাকিয়ে নিজেকেই বলতাম, ‘দেখো এবার’।’’

নিয়া আরও জানান, ‘আমি খুব সাধারণ দেখতে। আর এটা অস্বীকার করার কোনও জায়গাই নেই। আমি নিজের শরীরকে ঘৃণা করি না। নিজের শরীরকে বদলে ফেলতেও চাই না। কিন্ত আমার ব্লোটিংয়ের সমস্যা আছে। আমি সামান্য খাবার খেলেও আমার পেট ফোলা লাগে জল জমে। মাঝেমাঝে এটা মেনে নিতে আমার সমস্যা হয়। আমি ভেঙে পড়ি। আমি কাঁদি।’

‘কালী-এক অগ্নিপরীক্ষা’ দিয়ে অভিনয়ের দুনিয়ায় পা রাখেন নিয়া। এরপর ‘এক হাজারো মে মেরি বহেনা হ্যায়’, ‘জামাই রাজা’, ‘ইশক মে মরজওয়া’, ‘নাগিন ৪’-এ অভিনয় করেছেন তিনি।

বন্ধ করুন