বাড়ি > বায়োস্কোপ > রবিপক্ষে 'ভারততীর্থ'-এর সঙ্গে করোনা যোদ্ধাদের সম্মান সুজয়প্রসাদের,সঙ্গী ঋতুপর্ণা
ভারততীর্থ কবিতার মধ্যে দিয়েই কবি-প্রণাম এসপিসিক্রাফটের ৩৩ ছাত্রছাত্রীর (ছবি- ইনস্টাগ্রাম ও ফেসবুক)
ভারততীর্থ কবিতার মধ্যে দিয়েই কবি-প্রণাম এসপিসিক্রাফটের ৩৩ ছাত্রছাত্রীর (ছবি- ইনস্টাগ্রাম ও ফেসবুক)

রবিপক্ষে 'ভারততীর্থ'-এর সঙ্গে করোনা যোদ্ধাদের সম্মান সুজয়প্রসাদের,সঙ্গী ঋতুপর্ণা

  • লকডাউনে ডিজিটালেই কবি-প্রণাম। রবীন্দ্রনাথের ১৫৯তম জন্মবার্ষিকীতে এদেশি ও প্রবাসী বাঙালিদের কন্ঠে ধ্বনিত হল রবি ঠাকুরের 'ভারততীর্থ'।

এ বছরের পঁচিশে বৈশাখটা আর পাঁচটা বছরের মতো নয়।লকডাউনে ঘরবন্দি সকলে। তবুও আজ রবীন্দ্রনাথের ১৫৯তম জন্মবার্ষিকী। বাঙালির প্রাণের রবিকে স্মরণ না করে কি আজকের এই দিনে থাকা সম্ভব?  তাই লকডাউনে কবিগুরুর জন্মদিনে এক অভিনব উদ্যোগ নিলেন শিল্পী সুজয়প্রসাদ চট্টোপাধ্যায়। ভারত সহ আমেরিকা, ইংল্যান্ড, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া সহ বিভিন্ন দেশের ৩৩ জন বাঙালি ছেলেমেয়ের কণ্ঠে উচ্চারিত হল রবীন্দ্রনাথের লেখা 'ভারততীর্থ'। শুক্রবার রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তীতে মুক্তি পেল এই ভিডিয়ো।ভিনদেশীর কণ্ঠে কবিগুরুর কবিতা প্রাণ পেল। এসপিসিক্রাফটের হয়ে ভিডিয়োটি করেছেন অর্ক গোস্বামী। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত সুদূর সিঙ্গাপুর থেকে বসে এই ভিডিয়োর মুখবন্ধটি পাঠ করেছেন। এই ভিডিয়োর মধ্যে দিয়ে করোনার যোদ্ধাদের সেলাম জানালেন সুজয় প্রসাদ ও তাঁর ছাত্রছাত্রীরা।

 

সুজয়প্রসাদ চট্টোপাধ্যায় জানান,'ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত।এই অন্ধকার সময় দূর হোক। কবিতা হয়ে উঠুক প্রার্থনা। যারা আবৃত্তি করেছে, তারা অন্তর দিয়ে পড়েছে। ব‍্যাকরণের বিশল‍্যকরণী তারা জানেনা। দরকার ও নেই। ভাইজ‍্যাগে যা ঘটেছে তা আমাদের ব‍্যথিত করেছে। জানিনা, ভারত সব কলুষতা মুক্ত হয়ে আবার কবে মৃত্যুপুরীর দুয়ার থেকে ফিরবে। এই ৩৩জন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে দাঁড়িয়ে প্রার্থনা জানিয়েছে এই তীর্থভূমির জন্য।আমার এই ডিজিট্যাল দলের কবি প্রণাম আপনাদের সকলের মনে স্থান পাবে এই আশা রাখি'।

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তও সাধুবাদ জানিয়েছেন এই উদ্যোগকে। তিনি বলেন,' ভারতবর্ষ আজ খুবই দুঃসময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তাই এই ভারততীর্থ কবিতার মধ্য দিয়ে আমরা প্রার্থনা করলাম যাতে আমাদের ভারত একটু ভালো থাকে'। পাশাপাশি ১৫৯তম রবীন্দ্র জয়ন্তির শুভেচ্ছাও জানিয়েছেন ঋতুপর্ণা। 

বন্ধ করুন