বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'রূপঙ্করদাকে দিয়ে পরের ছবিতে গান গাওয়াব', কেকে-বিতর্কের মাঝে গায়কের পাশে প্রযোজক
রূপঙ্করকে নিয়ে বিতর্ক থামতে চায় না।

'রূপঙ্করদাকে দিয়ে পরের ছবিতে গান গাওয়াব', কেকে-বিতর্কের মাঝে গায়কের পাশে প্রযোজক

  • নেটমাধ্যমে একপ্রকার তুলোধোনা করা হয় জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত গায়ককে। শুধু তাই নয়, কেকে-র মৃত্যুর জন্য দায়ী করে তাঁকে কাঠগড়ায় তোলে নেটিজেনদের একাংশ।

রূপঙ্কর বাগচীর সমর্থনে সরব প্রযোজক রানা সরকার। জানালেন, আগামী দিনে কাজ করবেন গায়কের সঙ্গে।

গত ৩১ মে ফেসবুক লাইভে কেকে-কে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন রূপঙ্কর। দাবি করেছিলেন, বলিউডের এই নেপথ্য গায়কের তুলনায় বাংলার বহু গায়ক-গায়িকাই ভালো গান করেন। প্রশ্ন তোলেন, কেকে-কে নিয়ে বাঙালি শ্রোতাদের মধ্যে যে উন্মাদনা, তা বাংলার শিল্পীদের জন্য কেন নেই?

ঘটনাচক্রে রূপঙ্করের সেই লাইভ ভিডিয়ো পোস্ট হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যু হয় কেকে-র। এর পরেই শুরু যাবতীয় বিতর্ক। নেটমাধ্যমে এক প্রকার তুলোধোনা করা হয় জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত গায়ককে। শুধু তাই নয়, কেকে-র মৃত্যুর জন্য দায়ী করে তাঁকে কাঠগড়ায় তোলে নেটিজেনদের একাংশ।

এ বার সেই রূপঙ্করের হয়েই কথা বললেন রানা। শুক্রবার তিনি ফেসবুকে লেখেন, 'রূপঙ্করকে বয়কট করছি না। আমি কেকে-কে ভালোবাসি, ওঁর গানও ভালোবাসি। রূপঙ্করদা কেকে সম্বন্ধে যা বলেছে সেটা সমর্থন করছি না, উনি ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন, প্রকাশ্যে বলেছেন উনি দু:খিত।'

রানা মনে করেন, নেটমাধ্যমে রূপঙ্করকে নিয়ে নেতিবাচক চর্চা-আলোচনা এ বার বন্ধ হওয়া উচিত। রূপঙ্করের মন্তব্য থেকে আরও একটি বিষয় চর্চায় আসে। প্রাদেশিকতা এবং ভাষার লড়াই। এ প্রসঙ্গে রানা লিখেছেন, 'আমি অন্য বাংলা গানের পাশাপাশি রূপঙ্করদার গানও ভালোবাসি, মনে করি রূপঙ্কর বাংলা সংগীত জগতের এক সম্পদ। তাই রূপঙ্করদা-কে দিয়ে আমাদের পরের ছবিতে একটা গান গাওয়াব।'

প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার পরেও রূপঙ্করকে নিয়ে বিতর্ক থামেনি। নেটমাধ্যমে এখনও ট্রেন্ডিং '#বয়কটরূপঙ্কর'। এমন পরিস্থিতিতে রানার এই বার্তা কি খানিক স্বস্তি দেবে গায়ককে? উত্তর অজানা।

 

বন্ধ করুন