বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মুঘলরা ‘ডাকাত’! মনোজ মুনতাসিরকে তুলোধনা করলেন রিচা চড্ডা, নীরাজ ঘেওয়ান
মুঘল বিতর্কে সরগরম বলিউড। 
মুঘল বিতর্কে সরগরম বলিউড। 

মুঘলরা ‘ডাকাত’! মনোজ মুনতাসিরকে তুলোধনা করলেন রিচা চড্ডা, নীরাজ ঘেওয়ান

  • এর আগে ‘মুঘলরাই দেশের প্রকৃত নির্মাতা’ বলে সমালোচিত হয়েছেন পরিচালক কবীর খান। 

গীতিকার ও ‘ইন্ডিয়ান আইডল’র বিচারক মনোজ মুনতাশির নতুন বিতর্ক তৈরি করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সম্প্রতি তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও আপলোড করেন এবং সেখানে আকবর, বাবর, জাহাঙ্গীর, হুমায়ুনের মতো মুঘল শাসকদের ‘glorified dacoits’ বলে উল্লেখ করেন। আর তার জবাবেই রিচা চড্ডা, নীরাজ ঘেওয়ানের মতো বলিউডের তারকারা প্রতিবাদ করেন প্রকাশ্যে। জানান, মনোজের এই মন্তব্য সমস্যা তৈরি করতে পারে। 

নীরাজ ঘেওয়ান বলিউডকে ‘গিল্লি পুচ’, ‘মাসান’-র মতো ছবি উপহার দিয়েছে। তিনি মনোজের সেই ভিডিও টুইটারে নিজের অ্যাকাউন্টে শেয়ার করে লিখেছেন, ‘ধর্মান্ধতা বর্নবিদ্বেষে আটকে পড়েছে।’ নীরাজের সেই টুইটের উত্তরে রিচা লেখেন, ‘জঘন্য! বাজে কবিতা, দেখা যায় না। পেন নেমটাও তো ব্যবহার করা উচিত নয়। যখন কোন কিছুকে এত ঘৃণা কর, তাহলে কেন সেটাকে নিজের লাভের জন্য ব্যবহার করা।’

স্ক্রিন রাইটার ময়ূরী পুরী মন্তব্য করেন, ‘কেন এত ঘৃণা। কোনও দেশের ইতিহাসই সোনার হয় না। কিন্তু এখজন লেখকের কাজ আগুন জ্বালানো নয়, আগুন নেভানো।’ কবি হুসেন জানিয়েছেন, ‘এই প্রথম নয়, মনোজ এর আগেও সোশ্যাল মিডিয়ায় জাতিবিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছে।’

যদিও পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রিকে দেখা গিয়েছে মনোজের হয়েই কথা বলতে। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘মনোজ মুনতাসির নির্দিধায় ও নির্ভয়ে নিজের বক্তব্য নিজের কবিতার মাধ্যমে সকলের কাছে তুলে ধরছে। এটার মানে এই নয় ও হঠাৎ করে বদলে গিয়েছে। নির্বোধ উদারপন্থীরা, দয়া করে চুপ করে যাও।’

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে পরিচালক কবীর খান জানান, তিনি বুঝে উঠতে পারেন না কেন কিছু ছবিতে মুঘলদের খলনায়ক হিসেবে দেখানো হয়। তাঁর মতে, মুঘলরাই দেশের প্রকৃত নির্মাতা ছিলেন। তাই তাদের সম্পর্কে খারাপ জিনিস দেখালে স্বাভাবিক ভাবেই বিরক্তি আসে কবীর খানের। ইতিহাসকে বিকৃত করে কোনও একটা বিশেষ শ্রেণির জন্য ছবি বানানো নিয়েও সমালোচনা করেন তিনি। তা নিয়েও কম বিতর্ক হয়নি।

বন্ধ করুন