বাড়ি > বায়োস্কোপ > করোনা রুখতে দাবাং স্টাইলেই জনতাকে সর্তক করলেন সলমন
সরকারে নির্দেশ মেনে চলার আবেদন জানালেন সলমন খান (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
সরকারে নির্দেশ মেনে চলার আবেদন জানালেন সলমন খান (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

করোনা রুখতে দাবাং স্টাইলেই জনতাকে সর্তক করলেন সলমন

  • পনভেলের ফার্মহাউসে ঘরবন্দি রয়েছেন সলমন খান। সেখান থেকেই জনতার উদ্দেশে সর্তকবার্তা ভাইজানের।
  • অভিনেতা জানান, 'এটা কোনও পাবলিক হলিডে নয়, অত্যন্ত সিরিয়াস একটা বিষয়, তাই শীঘ্রই সেই মানসিকতা পরিবর্তন করুন'।

মহামারী করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে আগামী কয়েকদিন ঘরবন্দি হয়ে থাকার আবেদন জানাচ্ছে সরকার। একাধিক বলিউড তরকাই সরকারের এই বার্তা জনতার কাছে পৌঁছে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলেন সলমন খান। একদম দাবাং স্টাইলে জনতাকে সর্তক করলেন এই সুপারস্টার।

আপতত পনভেলের ফার্মহাউসে কেবলমাত্র পরিবারের সঙ্গেই সময় কাটাচ্ছেন সলমন। রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকে দেশজুড়ে পালিত হচ্ছে 'জনতা কার্ফু'। এর ঠিক আগে শনিবার রাতে ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিয়ো বার্তা পোস্ট করেন ভাইজান। যেখানে শুরুতেই জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত সকল ব্যক্তিকে ধন্যবাদ জানান সলমন খান। তিনি বলেন,' সবার প্রথম তো সেই সব মানুষগুলোকে ধন্যবাদ জানাতে চাই যাঁরা স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে যুক্ত, কিংবা পুলিশে কর্মরত যারা এই পরিস্থিতিতেও কাজ করে চলেছেন'।


এরপর মানুষের কাছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আবেদন জানান অভিনেতা। ভাইজান বলেন, 'আবেদন এটাই যে সরকার আপনার-আমার সবার জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এটাকে গুরুত্ব দিয়ে ভাবুন এবং অযথা গুজব রটাবেন না। 'আমার কিছু হবে না'-এই ভ্রান্ত ধারাণা ভুলে যাওয়ার কথাও স্মরণ করিয়ে দেন সলমন। এটাই সবসময়ের সমস্যা। আমরা অনেকেই ভাবি এটা আমাদের হবে না, হতে পারে না। করোনাভাইরাস যে কারুর শরীরে বাসা বাঁধতে পারে। বাস, ট্রেন, মার্কেট যে কোনও জায়গায় সংক্রমণ ছড়াতে পারে-তাহলে পাঙ্গা নেওয়ার কোনও অর্থই হয় না। বাইরে যাওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই'।

অনেকেই করোনার প্রকোপে ঘরবন্দি হয়ে থাকাটাকে ছুটি হিসাবে ধরে নিচ্ছে। সেই মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন দাবাং খান। তিনি কাতর স্বরে আবেদন করে বলেন, 'এটা কোনও পাবলিক হলিডে নয়, অত্যন্ত সিরিয়াস একটা বিষয়, তাই শীঘ্রই এগুলো বন্ধ করুন। হাত ধুন, মাস্ক পরুন, নিজেকে সুরক্ষিত রাখুন এবং অন্য মানুষজনের থেকে দূরে থাকুন। এগুলো করতে অসুবিধা কোথায়? এগুলো করে যদি মানুষের জীবন বাঁচে, আপনার নিজের জীবন বাঁচে তাহলে ক্ষতি কোথায়?'


বন্ধ করুন