বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সে কি, পুরনো জীবনে ফিরতে চাইছেন সায়ন্তিকা! তবে কি মন উঠল রাজনীতি থেকে
সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

সে কি, পুরনো জীবনে ফিরতে চাইছেন সায়ন্তিকা! তবে কি মন উঠল রাজনীতি থেকে

  • ‘টেক মি ব্যাক’ ক্যাপশনে ছবি দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে বাঁকুড়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে, হার হলেও জনসেবার কাজ চালিয়ে গিয়েছেন একাধারে। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশেষ স্নেহের পাত্রী তিনি। তাই তো হারের পরেও পেয়েছেন গুরু দায়িত্ব। সায়ন্তিকাকে দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদকের পদ। এছাড়া বাঁকুড়ার মানুষদের যে কোনও দরকারে তিনি তো আছেনই। 

তাহলে কোথায় ফিরতে চাইছেন নায়িকা? সমুদ্রের তীরে ছুটি কাটানোর কিছু থ্রো-ব্যাক ফোটো নিজের ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন তিনি। যেখানে দেখা যাচ্ছে কখনও হোটেলের জানলা থেকে একমনে সমুদ্রের দিকে চেয়ে আছেন। তো ককও নেমেছেন পুলে জলকেলি করতে। আর সেই ছবিগুলোর ক্যাপশনেই লিখেছেন ‘টেক মি ব্যক’। হ্যাশট্যাগে ‘মেজর মিসিং’ কথাটা লিখে বুঝিয়েছেন সমুদ্রকে মিস করছেন। কিংবা হয়তো ঘুরতে যাওয়া, করোনা আর কাজের চাপে যা এখন আর হয়ে উঠছে না!

কিছুদিন আগেই সামিল হয়েছিলেন বাঁকুড়ার হুল উৎসবে। পরনে সাদা শাড়ি, লাল ব্লাউজ,মাথায় ছোট টিপ৷ মাথার উপর কলসী৷ একেবারে সাদামাটা সাজে দেখা দিয়েছিলেন সায়ন্তিকা৷ সায়ন্তিকা বাঁকুড়ায় হারলেও করোনাকালে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। ‘দুয়ারে ডাক্তার’ ‘দুয়ারে অক্সিজেন’ ‘কোভিড সেফ হোম’ থেকে শুরু করে একগুচ্ছ পরিকল্পনা নিয়ে এসেছেন এলাকার মানুষদের জন্য। তাঁর বিশ্বাস, এখন যদি ভোট হত তাঁর কাজ দেখে খুশি হয়ে সকলে তাঁকেই ভোট দিতেন।

বন্ধ করুন