বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত: ১১ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টে রিয়া চক্রবর্তীর আবেদনের শুনানি
১১ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টে শুনানি হবে রিয়ার মামলার  (PTI)
১১ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টে শুনানি হবে রিয়ার মামলার  (PTI)

সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত: ১১ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টে রিয়া চক্রবর্তীর আবেদনের শুনানি

  • মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে রিয়ার পিটিশনের পরবর্তী শুনানি।

শনিবার রিয়া চক্রবর্তীর আবেদনের শুনানির দিন মঞ্জুর করল সুপ্রিম কোর্ট। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর মামলা পাটনা পুলিশের কাজ থেকে মুম্বই পুলিশের হাতে হস্তান্তর করার আবেদন জানিয়েছন রিয়া চক্রবর্তী।  মঙ্গলবার, ১১ অগস্ট রিয়া চক্রবর্তীর আবেদনের শুনানির দিন নির্দিষ্ট হয়েছে, খবর টাইমস নাও সূত্রে। 

এর আগে বুধবার,জাস্টিস হৃষিকেশ রায়ের বেঞ্চে  ৫ অগস্ট এই আবেদনের প্রথম পর্বের শুনানি হয়েছে। এদিন সুপ্রিম কোর্টকে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সিবিআই তদন্তের বিহার সরকারের আবেদনকে মান্যতা দিয়েছে কেন্দ্র। এবং সেইদিনের মধ্যেই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। এদিন সুপ্রিম কোর্টের তরফে এই মামলার সঙ্গে জড়িত সকল পক্ষকে তাঁদের জবাব দিতে বলা হয় আগামী তিনদিনের মধ্যে। এবং মহারাষ্ট্র সরকারকে নির্দেশ দেওয়া হয় তিনদিনের মধ্যে সুশান্তের মৃত্যু মামলায় মুম্বই পুলিশের তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে। বিহার পুলিশ গতকালই সুপ্রিম কোর্টে নিজেদের রিপোর্ট জমা দিয়েছে। মুম্বই পুলিশের জন্য নির্ধারিত সময় শেষ হচ্ছে আজ। 

সুশান্তের বাবা কেকে সিং রিয়া ও অভিনেত্রীর পুরো পরিবার এবং ম্যানেজাদের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা (আর্থিক ও মানসিক) এবং তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মতো অভিযোগ এনেছেন। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৪১,৩৪২,৩৮০,৪০৬, ৪২০-ধারায় পাটনার রাজীব নগর থানায় গত ২৫শে জুলাই এফআইআর দায়ের করেন সুশান্তের বাবা।  সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত মুম্বই পুলিশ করলেও কেন পাটনায় এফআইআর দায়ের করা হল সেই নিয়েই আপত্তি জানিয়েই সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন রিয়া। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন বিহার পুলিশের জুরিসডিকশন নিয়ে। উল্লেখ্য পাটনা পুলিশের এফআইআরের ভিত্তিতেই তদন্তভার হাতে নিয়েছে সিবিআই। 

অন্যদিকে শুক্রবার সুশান্তের মৃত্যুর মামলার সঙ্গে সম্পর্কিত আর্থিক তছরুপের মামলায় প্রায় ৯ ঘন্টা ধরে রিয়া চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি। সিবিআই এই মামলার দায়িত্ব ইতিমধ্যেই হাতে নিয়েছে, এবং সিবিআইয়ের বিশেষ তদন্তকারী দল অ্যান্টি-কোরাপশন ৬ ইউনিটের হাতে গিয়েছে এই মামলা। পাটনা পুলিশের সঙ্গেও ইতিমধ্যেই যোগাযোগ করা হয়েছে কেন্দ্রীয় সংস্থার তরফে। কিন্তু সিবিআই তদন্তের আপত্তি জানিয়ে এখনও নিজেদের অবস্থানে অনড় উদ্ধব ঠাকরে সরকার। এখন গোটা দেশের নজর ১১ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টের দিকে। 

বন্ধ করুন