বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > রং মাখি বলে বলে আমাদের পরিশ্রম রগড়ে দেওয়া হবে?, দিলীপকে প্রশ্ন BJP-র রূপাঞ্জনার
বিস্ফোরক রূপাঞ্জনা 
বিস্ফোরক রূপাঞ্জনা 

রং মাখি বলে বলে আমাদের পরিশ্রম রগড়ে দেওয়া হবে?, দিলীপকে প্রশ্ন BJP-র রূপাঞ্জনার

  • ‘আমি শিল্পীদের বলছি আপনারা গান গান,নাচুন। ওটা আপনাদের শোভা পায়, রাজনীতি করতে আসবেন না। ওটা আমাদের ছেড়ে দিন, না হলে রগড়ে দেব’, দিলীপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিবাদে রূপাঞ্জনা।

এবার কি তবে বিজেপির অন্দরেই ভাঙন? রবিবার বিজেপি নেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্রের বিস্ফোরক ফেসবুক পোস্ট সেই বিতর্কই উস্কে দিল। এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে বিঁধে সরব হলেন রূপাঞ্জনা। সম্প্রতি সংবাদ প্রতিদিনকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে দিলীপবাবু বলেছেন, ‘আমি শিল্পীদের বলছি আপনারা গান গান,নাচুন। ওটা আপনাদের শোভা পায়, রাজনীতি করতে আসবেন না। ওটা আমাদের ছেড়ে দিন, না হলে রগড়ে দেব। আর শিল্পীরা জানেন আমি কীভাবে রগড়াই’। দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্য নিয়ে কার্যত নিঃশ্চুপ বিজেপির তারকা প্রার্থীরা। একুশের বিধানসভা ভোটে গেরুয়া শিবির নির্বাচনী টিকিট দিয়েছেন শ্রাবন্তী, পায়েল,যশ, তনুশ্রীর মতো টলি তারকাদের। 

রাজ্য সভাপতির 'শিল্পী-বিরোধী' এই মন্তব্য নিয়ে তাঁরা চুপ হলেও, মুখ খুলেছেন রূপাঞ্জনা। নির্বাচনী টিকিট না পাওয়া এই বিজেপি নেত্রী ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘আজ শিল্পী হয়ে নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। রং মাখি বলে আমাদের এইভাবে অপমান করা হবে? রগড়ে দেওয়া হবে আমাদের পরিশ্রম। আমাদের নিজেদের কাজের প্রতি সততা, নিষ্ঠাকে অস্বীকার করা হবে?  না, ন্যাকামি করছি না। আমার বিজেপি কর্মী শিল্পীদের বলছি কাপুরুষ হওয়া বন্ধ করুন। সহ্যের সীমা আছে! আমি সমর্থন করি না এহেন অসম্মানজনক আচরণ’। 

নিমেষে ভাইরাল হয়ে যায় রূপাঞ্জনার এই ফেসবুক পোস্ট। এই পোস্ট দেখে এক নেটিজেন অভিনেত্রীকে পালটা প্রশ্ন করেন,  ‘তুমি এই দল এবং তার নেতৃবৃন্দকে ভালো করে জেনে, বুঝে তবেই গিয়েছ তো? চারটি অপশন রইল ১) হ্যাঁ, ২) না, ৩) ঠিক বুঝতে পারছি না, ৪) উত্তর দিতে বাধ্য নই’। 

এই প্রশ্নেরও বিস্তারিত জবাব দিয়েছেন রূপাঞ্জনা। অভিনেত্রী লেখেন, ‘হ্যাঁ বা না-এ উত্তর সারব না। আপনি শিল্পী নন, তাই বুঝবেন না আমি কী কথা বলছি। আমাদের অনেক দিনের নিঃস্বার্থ পরিশ্রমকে ছোট করা হয়েছে। যেহেতু আমার মতো অনেকেই কাজ করে এসেছে শিল্পীদের ঠিকমতো পারিশ্রমিক দেওয়ার লড়াইয়ে। শিল্পীদের ১৮ ঘন্টা, ২৪ ঘন্টা খাটানোর লড়াইয়ে যেটা কোনওভাবে ঠিক করা যায়নি, এতো বছর শুধু আর্টিস্ট ফোরাম লড়ে গেছে। জেনারেল মেম্বারদের জন্য কিন্তু কিছু করে উঠতে পারেনি। আমরা শুধু পেয়েছি অশ্রদ্ধা। তার প্রতিবাদে (বিজেপি) জয়েন করেছিলাম কারণ আমাকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। শিল্পী এবং টেকনিশিয়ানদের পাশে থাকা হবে’।

রূপাঞ্জনা মিত্রর এই জবাবই বলে দিচ্ছে বিজেপি নেতৃত্বর বিরুদ্ধে কথা খেলাপির অভিযোগ আনছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই সরব রূপাঞ্জনা। দিন কয়েক আগে দোলের উত্সবে মদন মিত্রর সঙ্গে বিজেপির তিন তারকা প্রার্থী- শ্রাবন্তী,পায়েল,তনুশ্রীর মঞ্চ ভাগ নিয়েও গর্জে উঠেছিলেন তিনি। রূপাঞ্জনা সরাসরি প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছিলেন ‘দলীয় কর্মীদের মনোবল ভাঙার অধিকার কে দিয়েছে? উচ্চতর নেতৃত্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি’। আর এবার সরাসরি বিজেপির রাজ্য সভাপতিকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে দিলেন রূপাঞ্জনা। 

বন্ধ করুন