বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Chronic kidney disease: কিডনির সমস্যা? ডায়াবিটিস নয় তো? জেনে নিন কী বলছেন চিকিৎসকরা

Chronic kidney disease: কিডনির সমস্যা? ডায়াবিটিস নয় তো? জেনে নিন কী বলছেন চিকিৎসকরা

ক্রনিক কিডনি রোগের কারণ হল কিডনির মধ্যে তরল, ইলেক্ট্রোলাইট ও‌ বর্জ্যের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া (Unsplash)

Chronic kidney disease on rise in people with diabetes, blood pressure: ডায়াবিটিস ও উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা এখন প্রায়ই দেখা যায়। তবে এই দুটি রোগ ডেকে আনতে পাথে আরও মারাত্মক সমস্যা। সাম্প্রতিক সমীক্ষা তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছে।

ডায়াবিটিস এখন সারা বিশ্ব জুড়েই মারাত্মক আকার ধারণ করছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ২০১৪ সালে ৪২২ মিলিয়ন মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হন‌। আমাদের দেশে ডায়াবিটিসে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৭ মিলিয়ন। শুধু বয়স্করাই নন, কম বয়সিরাও এই রোগে আক্রান্ত হতে পারে। এর ফলে বাড়ছে সমস্যা। বিশেষজ্ঞদের কথায়, ডায়াবিটিসের পাশাপাশি রক্তচাপের সমস্যাও বাড়ছে দিনদিন। বেশি রক্তচাপ ও ডায়াবিটিস ডেকে আনতে পারে অন্যান্য শারীরিক সমস্যা। রোগ দুটি দীর্ঘসময় ধরে থাকলে মারাত্মক আকারের অন্য রোগও দেখা দিতে পারে।

সম্প্রতি এক গবেষণা বিশেষজ্ঞদের এই আশঙ্কাকাকেই সঠিক প্রমাণ করেছে। গবেষণাটি জানাচ্ছে, ডায়াবিটিস ও উচ্চ রক্তচাপের কারণে বাড়ছে কিডনি খারাপ হওয়ার আশঙ্কা। দেখা গিয়েছে‌, ডায়াবিটিস ও উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে এমন ৩০ শতাংশ রোগীর কিডনির সমস্যা রয়েছে। বেশকিছু ক্ষেত্রে কিডনির ছোটখাটো সমস্যা থেকে কিডনি ফেলিওরের মতো মারাত্মক জটিলতাও দেখা যাচ্ছে।

কিডনি আক্রান্ত হওয়ার কারণ

কিডনি রক্তের বর্জ্য পদার্থগুলি ছেঁকে শরীরে পরিশ্রুত রক্ত সরবরাহ করে। এছাড়াও রক্তে অতিরিক্ত তরল থাকলে তাও ছেঁকে বের করে দেয় এই অঙ্গ। ক্রনিক কিডনি রোগের কারণ হল কিডনির মধ্যে তরল, ইলেক্ট্রোলাইট ও‌ বর্জ্যের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া। পরিস্থিতি চূড়ান্ত খারাপ হলে কিডনি কাজ করা বন্ধ করে দেয়।

সারা দেশ জুড়ে প্রধান শহরগুলিতে সম্প্রতি এই গবেষণাটি করা হয়েছে। প্রথম পর্যায়ের সমীক্ষাটি করা হয়েছে দেড় লাখ রোগীর উপর। মোট আড়াই লাখ রোগীকে নিয়ে সম্পূর্ণ সমীক্ষাটি হবে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। এর আগে ক্রনিক কিডনি রোগ নিয়ে বড় আকারে কোনও গবেষণা হয়নি। ফর্টিস হাসপাতালে নেফ্রোলজি ও কিডনি ট্রান্সপ্লান্টের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ সঞ্জীব গুলাটি রয়েছেন এই সমীক্ষার নেতৃত্বে। এইচটি ডিজিটালকে ফোনে তিনি এই ফলাফলের কথা জানান।

তাঁর কথায়, সমীক্ষার প্রাথমিক উদ্দেশ্য ছিল অন্য। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছিল কিডনির সমস্যা গুরুতর হওয়ার পর রোগীরা চিকিৎসার জন্য আসছেন। এর কারণ খুঁজতেই শুরু হয় সমীক্ষা। ১৯৯৯ সালে ডাঃ গুলাটি একই সমীক্ষা করেন। সেই সমীক্ষায় এর প্রধান কারণ হিসেবে দেখা দেয় ডায়াবিটিস। বর্তমানে ডায়াবিটিসের সঙ্গে যোগ দিয়েছে উচ্চ রক্তচাপ। আগের সমীক্ষাগুলোয় দশ থেকে ১৮ শতাংশ ডায়াবিটিস রোগীর ক্ষেত্রে ছিল ক্রনিক কিডনি রোগ। বর্তমানে তা বেড়ে ৩০ শতাংশ হয়েছে। চিকিৎসকের মতে, প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়লে কিডনির সমস্যা গুরুতর হয় না।

বন্ধ করুন