বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > শীতে রং-বেরঙের ফুল লাগান অনেকে, দেখুন ঘরের জিনিস দিয়েই কীভাবে সার দেবেন সেই গাছে

শীতে রং-বেরঙের ফুল লাগান অনেকে, দেখুন ঘরের জিনিস দিয়েই কীভাবে সার দেবেন সেই গাছে

ঘরোয়া উপায়ে সার দিন গাছে। 

বাড়ির ব্যবহার্য জিনিস দিয়েই খাবার দিতে পারবেন আপনার সাথের গাছকে।

শীত মানেই বাড়ির সামনের ছোট্ট বাগানে দোপাটি, গাঁদা, চন্দ্রমল্লিকা, গোলাপ, পিটুনিয়া গাছের সারি। অনেকেই ছাদে বা বাড়ির ব্যালকনিতেও এই সময় গাছ লাগিয়ে থাকেন। তবে শীতের গাছে বেশি বেশি ফুল পেতে সঠিক মাত্রায় সার দেওয়া খুব জরুরি। অনেকেই সময়ের অভাবে দোকান থেকে সার কিনে আনতে পারেন না! কারও আবার বাজেট কম থাকায় হয়ে যায় মুশকিল। তবে জানেন কি, বাড়ির ব্যবহার্য জিনিস দিয়েই খাবার দিতে পারবেন আপনার সাথের গাছকে। দেখুন কীভাবে তা করবেন।

ডিমের খোসা

গাছের সার হিসেবে ডিমের খোসা খুব উপকারি। ক্যালসিয়াম কার্বনেট পাওয়া যায় ডিমের খোসা থেকে। খোসা ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে রোদে শুকিয়ে নিন। এবার তা মিক্সিতে দিয়ে গুঁড়ো করে নিন। এবার তা গাছের মাটিতে ছড়িয়ে দিয়ে জল ঢেলে দিন। তবে দু'তিন মাস ছাড়া ছাড়া করলেই হবে। 

কফি

গুঁড়ো কফি গাছের জন্য খুব উপকারি। গোলাপ বা টমেটোগাছের জন্য বিশেষ করে। এতে মাটির অম্লতা বাড়াবে। টবের মাটিতে কফির গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন। 

কলার খোসা

কলার খোসা গাছের জন্য বেশ উপকারী। কলার খোসা দিয়ে সার বানিয়ে তা গাছের গোড়ায় দিতে পারেন সপ্তাহে একদিন করে। বিশেষ করে শীতের গাছের জন্য এটি বিশেষ উপকারী। কলার খোসা থেকে পটাশিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম, কপার, সোডিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ পাওয়া যায় কলার খোসা থেকে। একটা কাচের এয়ারটাইট বোতল নিয়ে তাতে তিন থেকে চারটে কলার খোসা কুটি করে দিয়ে দিন। এবার বোতলে জল ভরে ঢাকনা বন্ধ করে রাখুন। এবার এই বোতল ৪-৫ দিন ছায়া জায়গায় রাখুন। রোজ ২-৩ মিনিট করে ভালো করে ঝঁকিয়ে নেবেন। ৬ দিনের মাথায় কলার খোসা ভেজানো জল ছেঁকে নিন। তারপর তার সাথে সমপরিমাণ জল মিশিয়ে গাছের গোড়ায় ঢেলে দিন।

বন্ধ করুন