স্থায়ী বাসিন্দার নয়া নিয়ম নিয়ে পাক সমালোচনার পালটা দিল ভারত (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
স্থায়ী বাসিন্দার নয়া নিয়ম নিয়ে পাক সমালোচনার পালটা দিল ভারত (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

কাশ্মীরের এতই ভালো চাইলে সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধ করুক পাকিস্তান, কড়া জবাব ভারতের

ভারত জানিয়ে দেয়, নয়া নিয়ম একান্তই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাতে ইসলামাবাদের নাক গলানোর ছিঁটেফোটা প্রয়োজন নেই।

জম্মু ও কাশ্মীরের নয়া স্থায়ী বাসিন্দার (ডোমিসাইল) নিয়ম নিয়ে ভারতের সমালোচনা করেছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেজন্য ইমরানকে পালটা জবাব দিল নয়াদিল্লি। সাফ জানিয়ে দেওয়া হল, এটা (নয়া নিয়ম) একান্তই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাতে ইসলামাবাদের নাক গলানোর ছিঁটেফোটা প্রয়োজন নেই।

আরও পড়ুন : Coronavirus Update: হবে না বিপর্যয়, বন্ধ করতে হবে না পাখা-কম্পিউটার-AC-TV, জানাল কেন্দ্র

ভারতের নয়া কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ভূমিপুত্র কারা, গত ১ এপ্রিল সেই মাপকাঠি নির্ধারণ করেছিল কেন্দ্র। এরপর শুক্রবার গভীর রাতে তাতে সংশোধনী এনে জানানো হয়, শুধুমাত্র স্থানীয়রাই সরকারি চাকরি পাবেন। যথারীতি সেই নয়া নিয়মের সমালোচনা করে পাকিস্তান। একটি টুইটবার্তায় ইমরান অভিযোগ করেন, সমস্ত আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তি লঙ্ঘন করে অবৈধভাবে জম্মু ও কাশ্মীরের জনতাত্ত্বিক গঠন পরিবর্তন করার অঙ্গ হিসেবে নয়া নিয়ম চালু হয়েছে। সারা বিশ্বের নজর এখন করোনাভাইরাসের উপর রয়েছে। সেই পরিস্থিতির ফায়দা নিয়েছে ভারত। তবে কাশ্মীরের পাশে রয়েছে পাকিস্তান বলে দাবি ইমরান অভিযোগ করেন, জেনেভা সনদ লঙ্ঘন করেছে নয়া নিয়ম।

আরও পড়ুন : Covid-19: মহিলাদের তুলনায় করোনায় পুরুষদের মৃত্যুর সম্ভাবনা বেশি

শনিবার সেই সমালোচনার কড়া জবাব দেয় নয়াদিল্লি। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, 'ভারত নিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রীর অপরিণত মন্তব্য আমরা দেখেছি। ভারতীয় কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরের কোনও বিষয়ে পাকিস্তানের কোনও লোকাস স্ট্যান্ডি (হস্তক্ষেপ করার অধিকার) নেই।'

আরও পড়ুন : ধরা পড়ল কাবুলে গুরুদ্বারায় হামলার মূলচক্রী ফারুকি

নয়াদিল্লির তরফে সাফ জানানো হয়, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ইসলামাবাদ বারবার নাক গলানোর চেষ্টা করলেও তাদের অপ্রাসঙ্গিক দাবি মোটেও গ্রহণযোগ্য হয়। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেন, 'যদি জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষের কল্যাণে পাকিস্তান সাহায্য করতে চায়, তাহলে সীমান্ত সন্ত্রাস, হিংসার পথ ও মিথ্যা প্রচার বন্ধ রেখে তা করতে পারে।

বন্ধ করুন