বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Varanasi: ২০০৬ সালে বারাণসীতে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িত ওয়ালি উল্লাহর ফাঁসির সাজা
সাজা ঘোষণার পর ওয়ালি উল্লাহকে আদালত থেকে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। ছবি হিন্দুস্তান টাইমস।

Varanasi: ২০০৬ সালে বারাণসীতে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িত ওয়ালি উল্লাহর ফাঁসির সাজা

  • ২০০৬ সালের ৭ মার্চ ১৫ মিনিটের ব্যবধানে বারাণসীর সংকট মোচন মন্দির এবং বারাণসী ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে স্টেশনে জোড়া বিস্ফোরণ ঘটেছিল। সেই ঘটনায় কমপক্ষে ১৮ জন নিহত এবং ১০০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছিলেন। মন্দির চত্বরে বিস্ফোরণে সাতজন পূণ্যার্থীর মৃত্যু হয়েছিল।

বারাণসীতে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘটনায় মহাম্মদ ওয়ালি উল্লাহকে মৃত্যুদণ্ড দিল আদালত। গতকাল বারাণসীর নিম্ন আদালত তার মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। ২০০৬ সালে বারাণসীতে সিরিয়াল বিস্ফোরণের মামলায় কিছুদিন আগে তাকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল আদালত। গতকাল তার ফাঁসির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

২০০৬ সালের ৭ মার্চ ১৫ মিনিটের ব্যবধানে বারাণসীর সংকট মোচন মন্দির এবং বারাণসী ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে স্টেশনে জোড়া বিস্ফোরণ ঘটেছিল। সেই ঘটনায় কমপক্ষে ১৮ জন নিহত এবং ১০০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছিলেন। মন্দির চত্বরে বিস্ফোরণে সাতজন পূণ্যার্থীর মৃত্যু হয়েছিল। সে ঘটনায় ওয়ালি উল্লাহকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারপর থেকে মামলা চলছিল বারাণসীর নিম্ন আদালতে। জেলা ও দায়রা বিচারক জিতেন্দ্র কুমার সিনহা রায়ে উল্লেখ করেছেন, ‘অপরাধটি বিরলতম।’ এরপরে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা এবং সন্ত্রাস চালানোর অপরাধে ওয়ালিউল্লাহকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত। আদালতের নির্দেশ তার মৃত্যু পর্যন্ত তাকে ফাঁসিতে ঝোলাতে হবে।

উল্লেখ্য, ওয়ালি উল্লাহ বারাণসী ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে স্টেশনে প্রথম শ্রেণির ওয়েটিং রুমে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় খালাস পেয়েছিলেন। ঘটনার দিন প্রথম বিস্ফোরণ ঘটেছিল বারাণসী হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে সংকট মোচন মন্দিরে। সেখানে হাজার হাজার ভক্ত প্রার্থনা করতে জড়ো হয়েছিলেন। তার ১৫ মিনিট পরে ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনের ওয়েটিং রুমে আরেকটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। সংকটমোচন মন্দিরে বিস্ফোরণের ঘটনায় তার মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

বন্ধ করুন