বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > AI Urinating case: প্রস্রাবকাণ্ডে এয়ার ইন্ডিয়ার ৩০ লাখ টাকার জরিমানা ঘোষণা ডিজিসিএর, সাজা পেলেন পাইলট ইন কমান্ডও

AI Urinating case: প্রস্রাবকাণ্ডে এয়ার ইন্ডিয়ার ৩০ লাখ টাকার জরিমানা ঘোষণা ডিজিসিএর, সাজা পেলেন পাইলট ইন কমান্ডও

এয়ার ইন্ডিয়ার বড়সড় জরিমানা প্রস্রাব কাণ্ডে (Photo by Sajjad HUSSAIN / AFP) (AFP)

শুধু এয়ার ইন্ডিয়াকে জরিমানা করাই নয়, ডিজিসিএ ওই বিমানের পাইলট-ইন-কমান্ডের লাইসেন্স বাতিল করে দিয়েছে। ওই পাইলট আপাতত ৩ মাস বিমান চালাতে পারবেন না। তাঁকে ৩ মাসের জন্য তাঁর সমস্ত দায়িত্ব কর্তব্য থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

বিমানে মহিলার গায়ে মূত্রত্যাগ ইস্যুতে বড়সড় জরিমানার কবলে পড়ল এয়ার ইন্ডিয়া। শুক্রবার ডিজিসিএর তরফে জানানো হয়েছে, প্রস্রাবকাণ্ডে নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য এয়ার ইন্ডিয়াকে ৩০ লাখ টাকার জরিমানা দিতে হবে। উল্লেখ্য, গত ২৬ নভেম্বর ২০২২ সালে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে এক মহিলার গায়ে শঙ্কর মিশ্র নামে এক সহযাত্রীর মূত্রত্যাগের অভিযোগ ওঠে। সেই মামলায় জানুয়ারি ২০২৩ সালের ২০ তারিখ ডিজিসিএ নিয়েছে কড়া পদক্ষেপ।

শুধু এয়ার ইন্ডিয়াকে জরিমানা করাই নয়, ডিজিসিএ ওই বিমানের পাইলট-ইন-কমান্ডের লাইসেন্স বাতিল করে দিয়েছে। ওই পাইলট আপাতত ৩ মাস বিমান চালাতে পারবেন না। তাঁর সমস্ত দায়িত্ব কর্তব্যে গাফিলতির জেরেওই সাজা বলে জানানো হয়েছে। এছাড়াও এয়ার ইন্ডিয়ার ডিরেক্টর ইন ফ্লাইট সার্ভিসে আসীন ব্যক্তিকে ৩ লাখ টাকার জরিমানা করা হয়েছে। ঘটনার প্রায় দেড়মাসেরও বেশি সময়ের পর ডিরেক্টোরেট জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশনের তরফে এই কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ডিজিসিএ নিজের তদন্তে ওই এয়ারলাইন্সের গাফিলতি খুঁজে পেয়েছে এই প্রস্রাবকাণ্ডে। ডিজিসিএ জানাচ্ছে, অসামরিক বিমানপরিবহনকারী ওই সংস্থা এই ইস্যুতে বেশ উদাসীন ছিল। গোটা ঘটনা নিয়ে একটি সম্পূর্ণ রিপোর্ট চেয়েছে ডিজিসিএ। এয়ারলাইন্সের তরফেই এই রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৬ নভেম্বর নিউইয়র্ক থেকে দিল্লিগামী বিমানে এই ঘটনা ঘটে যায়। বিমানের বিজনেস ক্লাসে বসেছিলেন অভিযুক্ত শঙ্কর মিশ্র। অভিযোগ তখনই তিনি সহযাত্রী মহিলার গায়ে প্রস্রাব করেন। অসমর্থিত সূত্রের দাবি, মহিলা ক্রিউদের একথা জানান। ক্রিউ সদস্যরা গিয়ে দেখেন ততক্ষণ কার্যত ঘোরের মধ্যে ঘুমন্ত অবস্থায় রয়েছেন অভিযুক্ত শঙ্কর মিশ্র। এরপর ঘটনার বেশ কিছুদিন পর তুলকালাম শুরু হয় ঘৃণ্য এই ঘটনার অভিযোগ ঘিরে। তদন্তে নামে দিল্লি পুলিশ। জারি হয় লুক আউট নোটিস। শেষে শঙ্কর মিশ্র গ্রেফতার হন ও এই মামলা চলতে থাকে কোর্টে।

 

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন