বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অসমে উচ্ছেদ অভিযানে অশান্তি, গ্রেফতার ২
দরং জেলায় উচ্ছেদ অভিযানের পর এভাবেই অস্থায়ীভাবে তৈরি টিনের ছাউনির নীচে আশ্রয় নিয়েছেন বাসিন্দারা (ANI Photo) (Manash Das)
দরং জেলায় উচ্ছেদ অভিযানের পর এভাবেই অস্থায়ীভাবে তৈরি টিনের ছাউনির নীচে আশ্রয় নিয়েছেন বাসিন্দারা (ANI Photo) (Manash Das)

অসমে উচ্ছেদ অভিযানে অশান্তি, গ্রেফতার ২

  • তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র, অবৈধ জমায়েত, মারাত্মক অস্ত্রের ব্যবহার, সরকারি কাজে বাধাদান, খুনের চেষ্টার মতো আঘাত করার অভিযোগ তোলা হয়েছে।

অসমের দরং জেলায় উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে গত সপ্তাহে তুলকালাম কাণ্ড ঘটে। পুলিশের গুলিতে দুজনের মৃত্যু হয় বলেও দাবি করা হচ্ছে। এদিকে অশান্তির ঘটনার পেছনে কাদের উসকানি ছিল এনিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অসমের মুখ্য়মন্ত্রী। এবার সেই ঘটনায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করেছে অসম পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে ৪৭ বছর বয়সী কিরাকারা গ্রামের বাসিন্দা চান্দ মামুদ ও ঢোলপুরের বাসিন্দা ৩৭ বছর বয়সী আসমত আলি আহমদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র, অবৈধ জমায়েত, মারাত্মক অস্ত্রের ব্যবহার, সরকারি কাজে বাধাদান, খুনের চেষ্টার মতো আঘাত করার অভিযোগ তোলা হয়েছে। তারা দুজনেই ঢোলপুরের পঞ্চায়েতের প্রতিনিধি।

অসমের দরং জেলায় উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে গত সপ্তাহে তুলকালাম কাণ্ড ঘটে। পুলিশের গুলিতে দুজনের মৃত্যু হয় বলেও দাবি করা হচ্ছে। এদিকে অশান্তির ঘটনার পেছনে কাদের উসকানি ছিল এনিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অসমের মুখ্য়মন্ত্রী। এবার সেই ঘটনায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করেছে অসম পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে ৪৭ বছর বয়সী কিরাকারা গ্রামের বাসিন্দা চান্দ মামুদ ও ঢোলপুরের বাসিন্দা ৩৭ বছর বয়সী আসমত আলি আহমদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র, অবৈধ জমায়েত, মারাত্মক অস্ত্রের ব্যবহার, সরকারি কাজে বাধাদান, খুনের চেষ্টার মতো আঘাত করার অভিযোগ তোলা হয়েছে। তারা দুজনেই ঢোলপুরের পঞ্চায়েতের প্রতিনিধি।

|#+|

এদিকে অসমের গরুখুঁটি প্রকল্পের আওতায় থাকা জমিই খালি করার চেষ্টা করেছিল সরকার। ৭৭, ৪২০ বিঘা জমি বেআইনীভাবে দখল করা হচ্ছিল বলে অভিযোগ। এদিকে এই এলাকার উন্নতির জন্য ৯.৬ কোটি টাকা বাজেটেও বরাদ্দ করা হয়েছিল। এই জায়গাতে বেশিরভাগই বাংলাভাষী মুসলিমরা থাকেন। এদিকে অশান্তির ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গুয়াহাটি হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিকে দিয়ে বিচারবিভাগীয় তদন্তেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ভূমিহীনদের পুনর্বাসন দেওয়া হবেও আশ্বাস দিয়েছে সরকার। তবে মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, বহিরাগত লোকজন অশান্তিতে উসকানি দিচ্ছে, তবে উচ্ছেদ অভিযান চলবে। 

 

বন্ধ করুন