বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিধানসভা নির্বাচন মাথায় রেখে রাজ্যস্তরে নেতৃত্বে পরিবর্তন বিজেপির
রাজ্যস্তরে দায়িত্বে নতুন নেতাদের নাম ঘোষণা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা।
রাজ্যস্তরে দায়িত্বে নতুন নেতাদের নাম ঘোষণা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা।

বিধানসভা নির্বাচন মাথায় রেখে রাজ্যস্তরে নেতৃত্বে পরিবর্তন বিজেপির

  • পশ্চিমবঙ্গে নেতৃত্বে বহাল থাকলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তাঁর সহযোগী হিসেবে দায়িত্ব পেলেন বিজেপি আইটি সেল প্রধান অরবিন্দ মেনন ও অমিত মালব্য।

বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে, এমন রাজ্যগুলির দায়িত্বে নতুন নেতাদের নাম ঘোষণা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা। এই বিষয়ে অপরিবর্তিত থাকল শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ, যে রাজ্যে আগের মতোই নেতৃত্বে বহাল থাকলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তাঁর সহযোগী হিসেবে দায়িত্ব পেলেন বিজেপি আইটি সেল প্রধান অরবিন্দ মেনন ও অমিত মালব্য।

অসমের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে জাতীয় সহ-সভাপতি বৈজয়ন্ত পান্ডাকে, কেরালার লোক সভা সাংসদ সি পি রাধাকৃষ্ণনকে নিজ রাজ্যের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তামিল নাডুর দায়িত্ব পেয়েছেন জাতীয় সাধারণ সম্পাদক সি টি রবি এবং পুদুচেরির দায়িত্ব পেলেন কর্নাটক বিজেপির সহ সভাপতি নির্মল কুমার সুরানা। এই ৫ রাজ্যেই ২০২১সালে বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে।

বৈজয়ন্ত পান্ডাকে অবশ্য অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে দিল্লির ভারও বহন করতে হবে।

নবনিযুক্ত জাতীয় সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ ও তেলাঙ্গনার দায়িত্ব পেয়েছেন তরুণ চুঘ, তামিল নাডু ছাড়াও গোয়া ও মহারাষ্ট্রের দায়িত্ব পেয়েছেন সি টি রবি, ওড়িশা ও ছত্তিশগড়ের দায়িত্বে এসেছেন ডি পুরন্দেশ্বরী, চণ্ডীগড়, উত্তরাখণ্ড ও পঞ্জাবের দায়িত্বে দুষ্যন্ত গৌতম এবং অরুণাচল প্রদেশ ও ঝাড়খণ্ডের দায়িত্ব পেয়েছেন দিলীপ শইকিয়া। 

জম্মু ও কাশ্মীরের দায়িত্ব এর আগে ছিল রাম মাধবের উপরে। মনে করা হচ্ছে বিজেপি জাতীয় নেতৃত্ব থেকে বাদ পড়র পরে ফের আরএসএস-এই ফিরবেন মাধব, যেখানে দীর্ঘ দিন তিনি মুখপাত্রের দায়িত্বে ছিলেন। 

হরিয়ানার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেতা বিনোদ তাওড়েকে। তাঁর সঙ্গে অবশ্য দায়িত্ব ভাগ করে নিয়েছেন পঙ্কজ মুন্ডে, যাঁকে সম্প্রতি জাতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নিয়োগ করেছেন নড্ডা। আবার মধ্য প্রদেশে বিশ্বেশ্বর টুডুর সঙ্গেও মুন্ডেকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

অন্ধ্র প্রদেশের দায়িত্বে আগের মতোই থাকছেন বিদেশ দফতরের প্রতিমন্ত্রী তথা সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী ভি মূরলীধরন। তাঁর সহযোগী হিসেবেল থাকছেন সুনীল দেওধর। 

জাতীয় সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদবের হাতে থাকছে আগের মতোই বিহার ও গুজরাতের দায়িত্ব। মধ্য প্রদেশের দায়িত্ব পেয়েছেন মূরলীধর রাও।

রাজস্থান ও কর্নাটকের দায়িত্বে আনা হয়েছে সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিংকে। প্রাক্তন কৃষিমন্ত্রী রাধামোহন সিংলউত্তর প্রদেশের দায়িত্বে এসেছেন। হিমাচল প্রদেশের দায়িত্ব বর্তেছে অবিনাশ রায় খন্নার উপরে, লাক্ষাদ্বীপের দায়িত্বে এসেছেন আবদুল্লা কুট্টি, সম্বিৎ পাত্র মণিপুরের ও নলিন কোহলি নাগাল্যান্ডের দায়িত্ব পেয়েছেন। 

ত্রিপুরার দায়িত্বে আনা হয়েছে বিনোদ শংকরকে, সিকিমে সুকান্ত মজুমদারকে, মিজোরামে মোনলুমো কিকনকে, মেঘালয়ে চুবা আওকে, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে সত্য কুমারকে এবং দমন, দিউ এবং দাদরা ও নগর হাভেলির দায়িত্ব পেয়েছেন বিজয় রাহতকর।

 

বন্ধ করুন