বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মহারাষ্ট্রে NCP, সেনাকে টেক্কা; ৪১৬ আসন পেয়ে স্থানীয় নির্বাচনে ‘ফার্স্ট বয়’ BJP
বিজেপির পতাকা (HT_PRINT)
বিজেপির পতাকা (HT_PRINT)

মহারাষ্ট্রে NCP, সেনাকে টেক্কা; ৪১৬ আসন পেয়ে স্থানীয় নির্বাচনে ‘ফার্স্ট বয়’ BJP

  • মহারাষ্ট্রের স্থানীয় নির্বাচনে কংগ্রেস চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে ২৯৭ আসনের দৌলতে।

মারাঠাভূমে প্রথম স্ বিজেপি। মহারাষ্ট্রের স্থানীয় নির্বাচনে একক বৃহত্তম দল হিসেবে উঠে এল বিজেপি। গ্রামীণ ও মফস্বল অঞ্চলে অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে বিজেপি একাই ৪১৬টি আসন পেয়েছে। এদিকে এনসিপি দ্বিতীয় স্থানে থেকে ৩৭৮টি আসন নিজেদের ঝুলিতে পুড়তে সক্ষম হয়েছে। এদিকে তৃতীয় স্থানে থাকা শিবসেনা জিতেছে ৩০১টি আসনে। কংগ্রেস চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে ২৯৭ আসনের দৌলতে।

এদিকে বিজেপি একক বৃহত্তম দল হলেও সম্মিলিত ভাবে এনসিপি, শিবসেনা, কংগ্রেস ৯৭৬টি আসন জিতেছে। গোষিত আসনের ৬০ শতাংশেরও বেশি গিয়েছে মহাবিকাশ আঘাড়ি জোটের ঝুলিতে। এদিকে আসন সংখ্যার দিক থেকে এনসিপি বিজেপির থেকে পিছিয়ে থাকলেও নগর পঞ্চায়ের দখলের নিরিখে এগিয়ে এনসিপি। এনসিপি মোট ২৫টি নগর পঞ্চায়েত দখল করতে সক্ষম হয়েছে। অপরদিকে বিজেপির ঝুলিতে গিয়েছে ২৪টি নগর পঞ্চায়েত।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এই নির্বাচন বিজেপি বা মহাবিকাশ আঘাড়ি, কোনও পক্ষের জন্যেই নতুন করে কোনও জমি তৈরি করে দেয়নি। বিশ্লেষকদের মতে, বিজেপি রাজ্যে সমর্থন হারায়নি। তবে বিজেপিকে ক্ষমতা থেকে দূরে রাখতে এনসিপি, শিবসেনা ও কংগ্রেসকে একসঙ্গে থাকতে হবে।

উল্লেখ্য, সব মিলিয়ে, মহারাষ্ট্র রাজ্য নির্বাচন কমিশন ১০৬টি নগর পঞ্চায়েতের ১৮০২টি আসনে, দুটি জেলা পরিষদের ১০৫টি আসন এবং ১৫টি পঞ্চায়েত সমিতিতে ২১০টি আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত করে৷ ২১ ডিসেম্বর এবং ১৮ জানুয়ারি দুই দফায় এই ভোট অনুষ্ঠিত হয়। মাঝে সুপ্রিম কোর্টে গড়ায় এই ভোটের ইস্যু। ওবিসিদের জন্য সংরক্ষণ তুলে দেওয়া হয় স্থানীয় নির্বাচনে। সেই নিয়ে আইনি জটিলতার জেরে দ্বিতীয় দফার ভোট ১৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

 

বন্ধ করুন