ছবিটি প্রতীকী।
ছবিটি প্রতীকী।

করোনাভাইরাসের ছোবল কি ভারতেও! মুম্বইতে কড়া নজরে ২ চিন-ফেরত যাত্রী

  • ভাইরাস আক্রান্তদের জন্য মুম্বইয়ের চিঞ্চপোকালির কস্তুরবা হাসপাতালে বিশেষ আইসোলেশন ওয়ার্ডের ব্যবস্থা করেছে বিএমসি। সেখানেই সম্প্রতি চিন সফর সেরে আসা দুই ব্যক্তিকে ভরতি করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস আক্রাম্ত সন্দেহে চিন ফেরত দুই যাত্রীকে মুম্বইতে কড়া নজরদারিতে রাখা হল। শুক্রবার এই তথ্য জানিয়েছে বৃহম্মুম্বই পুর নিগম (বিএমসি)।

চিনে করোনাভাইরাসের হানায় অসংখ্য মানুষে অসুস্থ হওয়ার জেরে ভারতের প্রতিটি প্রধান বিমানবন্দরে চূড়ান্ত সদতর্কতা জারি হয়েছে। এই ভাইরাস আক্রান্তদের জন্য মুম্বইয়ের চিঞ্চপোকালির কস্তুরবা হাসপাতালে বিশেষ আইসোলেশন ওয়ার্ডের ব্যবস্থা করেছে বিএমসি। সেখানেই সম্প্রতি চিন সফর সেরে আসা দুই ব্যক্তিকে ভরতি করা হয়েছে।

বিএমসি-এর একজিকিউটিভ স্বাস্থ্য আধিকারিক ডক্টর পদ্মজা কেসকর জানিয়েছেন, ‘করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহভাজনদের রোগ নির্ণয় ও চিকিত্সার জন্য বিশেষ আইসোলেশন ওয়ার্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

তিনি জানিয়েছেন, সামান্য কাশি এবং সর্দিতে ভোগার উপসর্গ দেখা দিলে চিন থেকে ফিরে আসা দুই ব্যক্তিকে ওই ওয়ার্ডে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে সৌদিতে নজরবন্দি কেরালার ৩০ নার্স

কেসকর আরও জানিয়েছেন, চিন থেকে আসা ব্যক্তিদের মধ্যে করোনাভাইরাস আক্রান্তের কোনও উপসর্গ দেখা গেলে সরাসরি কস্তুরবা হাসপাতালের আইসোলেশন ওযার্ডে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে।

কেসকর দাবি করেছেন, ‘করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে অবিলম্বে তা বিএমসি-এর গোচরে আনার জন্য শহরের সমস্ত বেসরকারি চিকিত্সকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) মতে, বিরাট ভাইরাস পরিবারের সদস্য করোনাভাইরাস সংক্রমণের ফলে প্রাথমিক উপসর্গ হিসেবে সাধারণ সর্দি, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিনে ইতিমধ্যে বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে। অপেক্ষাকৃত অচেনা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে দ্রুত চিকিত্সা না হলে বিপত্তি দেখা দেয়।

বন্ধ করুন